৩৫ হাজার মানুষ মুক্তহচ্ছে দুর্ভোগ থেকে

এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া:

একটি সেতু নির্মাণের মাধ্যমে অবশেষে চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চারটি ওয়ার্ডের অন্তত ৩৫ হাজার মানুষ মুক্ত হচ্ছে দুর্ভোগ থেকে। ইউনিয়নের মাছঘাট এলাকায় এতদিন একটি বড়আকারের পাকা সেতু না থাকার কারণে যাতায়াতকারী চারটি ওয়ার্ডের সর্বসাধারণকে বছরের পর বছর পোহাতে হয়েছে সীমাহীন দুর্ভোগ। জনগনের দুর্ভোগের বিষয়টি নজরে আসার পর চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম মাছঘাট স্টেশনের অদুরে পুরাতন সেতুটি ভেঙ্গে একটি টেকসই সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেন।

এরই অংশহিসেবে চলতি ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে চকরিয়া উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অধিদপ্তর (পিআইও) থেকে বিশেষ বরাদ্দে একটি সেতু নির্মাণের ব্যবস্থা করেন সাংসদ আলহাজ জাফর আলম। শনিবার সকালে চিরিঙ্গা ইউনিয়নে ২ কোটি ১৪ লাখ ৬৩ হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মানাধীন মাছঘাট সেতুর উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনও করেছেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের এমপি জাফর আলম।

পরিদর্শনকালে এমপি জাফর আলম সেতুর নির্মাণ কাজের অগ্রগতি এবং কাজের গুনগত মান নিশ্চিতে যাছাই-বাছাই করেন। এসময় প্রকল্প বাস্তবায়ন অধিদপ্তর (পিআইও) বিভাগের কর্মকর্তারা, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, চিরিঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের বেশ ক’জন ইউপি সদস্য, আওয়ামীলীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মী এবং এলাকাবাসি উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা বলেছেন, চিরিঙ্গা ইউনিয়নের মাছঘাট এলাকায় এতদিন একটি বড় আকারের পাকা সেতু না থাকার কারণে যাতায়াতকারী চারটি ওয়ার্ডের সর্বসাধারণকে বছরের পর বছর পোহাতে হয়েছে সীমাহীন দুর্ভোগ। জনগনের দুর্ভোগের বিষয়টি নজরে আসার পর চকরিয়া-পেকুয়া (কক্সবাজার-১) আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম মাছঘাট স্টেশনের অদুরে পুরাতন সেতুটি ভেঙ্গে একটি টেকসই সেতু নির্মাণের উদ্যোগ নেন।

জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসির দাবি, মাছঘাট স্টেশনের অদুরে একটি বড়আকারের পাকা সেতু নির্মাণের মাধ্যমে অবশেষে চকরিয়া উপজেলার চিরিঙ্গা ইউনিয়নের চারটি ওয়ার্ডের অন্তত ৩৫ হাজার মানুষ মুক্ত হচ্ছে দুর্ভোগ থেকে। আমরা জনগনের পাশে থাকার জন্য সাংসদ আলহাজ জাফর আলমকে ধন্যবাদ জানাই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •