সিবিএন ডেস্কঃ
করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন লালমনিরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক  (জেলা জজ) ফেরদৌস আহমেদ।

বুধবার (২৪ জুন) রাতে সুপ্রিম কোর্টের স্পেশাল অফিসার ও মুখপাত্র মোহাম্মাদ সাইফুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, বুধবার রাতে লালমনিরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক  (জেলা জজ) ফেরদৌস আহমেদ মারা গেছেন। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনি দীর্ঘ দিন ঢাকার সিএমএইচে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। রাত ৮টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।
জানা গেছে, ফেরদৌস আহমেদ গত ১ জুন ঢাকা থেকে লালমনিরহাটে যান এবং গত ৪ জুন আদালতে বিচার কাজ পরিচালনা শেষে আবারও ঢাকায় ফিরে আসেন। এরপর অসুস্থ হয়ে পড়লে তার করোনা পরীক্ষা করানো হয়। রিপোর্টে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ায় তাকে ঢাকার সিএমএইচে ভর্তি করানো হয়। এরপর  শ্বাসকষ্ট বেড়ে যাওয়ায় তাকে আইসিইউতে রাখা হয়।
প্রসঙ্গত, সারাদেশে ছড়িয়ে পড়া করোনা মহামারিতে এপর্যন্ত নিম্ন আদালতের ২৬ জন বিচারক ও ৭১ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সুপ্রিম কোর্টের ২৬ জন কর্মচারী আক্রান্ত হয়েছেন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।
আইনমন্ত্রীর শোক
করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে লালমনিরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক ফেরদৌস আহমেদের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।
বুধবার (২৪ জুন) রাতে আইনমন্ত্রী এক শোকবার্তায় প্রয়াত ফেরদৌস আহমেদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •