নিজস্ব প্রতিনিধি :

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় আবারো দুই সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। সপ্তাহের শনিবার ও মঙ্গলবার ছাড়া বাকি দিনগুলোতে লকডাউন কার্যকরে কঠোর অবস্থান নিয়ে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

এছাড়াও বিভিন্ন পেশার মানুষদের সমন্বয়ে দুইটি সেচ্ছাসেবক টিম গঠন করা হয়েছে। এক কথায় উপজেলা প্রশাসন পেকুয়াকে করোনা মুক্ত রাখতে কঠোর প্রদক্ষেপের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

সোমবার বিকেল ৩টার দিকে উপজেলা প্রশাসন হল রুমে করোনা ভাইরাস প্রার্দুভাব রোধে জরুরী সভার মাধ্যমে বেশ কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি সাঈকা সাহাদাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন, কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট কামাল হোসেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর দায়িত্বরত কর্মকর্তা, উপজেলা আ’লীগের সস্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব আবুল কাশেম, শিক্ষা কর্মকর্তা সালামত উল্লাহ খান, পেকুয়া থানার প্রতিনিধি এসআই আতিকুর রহমান মজুমদার, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও মুজিবুর রহমান, পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ বারেক, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি কপিল উদ্দিন, রিপোর্টার্স ইউনিটি পেকুয়ার সভাপতি মোঃ ফারুরু, পেকুয়া বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মিনহাজ উদ্দিন, মালিক সমিতির সভাপতি মোঃ ইসমাঈল সিকদার, সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন সুজন, উপজেলা আ’লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য নাসির উদ্দিন বাদশা ছাড়াও ব্যাংক কর্মকর্তা, এনজিও কর্মকর্তা ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য রাখেন।

এসময় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিকি মারমা, সদর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আজম খান, শ্রমিকলীগ নেতা হুমাইন কবিরসহ

বেশ কিছু সিদ্ধান্তের মধ্যে অল্প কিছু সিদ্ধান্ত হল, শনিবার ও মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সমস্ত দোকান খোলা থাকবে। এ সিদ্ধান্ত ৭ ইউনিয়নের জন্য প্রযোজ্য।

ব্যাংক রবিবার, মঙ্গলবার ও বৃহস্পতিবার খোলা থাকবে।

ঔষুধ, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রী ও কৃষি পণ্য খোলা থাকবে।

স’মিল শনিবার ও মঙ্গলবার খোলা থাকবে। বাকি সময় রাতদিন বন্ধ থাকবে।

সমস্ত গাড়ি পেকুয়া বাজারের বাহিরে থাকিবে। পশ্চিম পার্শ্বে গ্রামীণ ব্যাংকক সংলগ্ন আর পূর্ব পার্শ্বে ইসলামী ব্যাংকের পাশে থাকিবে।

সেলুন শনিবার আর মঙ্গলবার খোলা থাকবে। তবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিচালনা করতে হবে। এছাড়াও আরো বেশ কিছু সিদ্ধান্ত উপজেলা প্রশাসন থেকে গ্রহণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ সমস্ত সিদ্ধান্তের আলোকে সিদ্ধান্তগুলো বাস্তবায়নের জন্য বিভিন্ন পেশার মানুষদের সমন্বয়ে সেচ্ছাসেবক টিম গঠন করা হয়েছে। তাদের কাজ হচ্ছে পেকুয়া বাজার ও চৌমহুনী সহ আশেপাশের এলাকায় শান্তিপূর্নভাবে লকডাউন বাস্তবায়ন করা। প্রয়োজনে উপজেলা প্রশাসন ও থানা প্রশাসনের সহযোগিতা নেয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •