মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

করোনা পজেটিভ রোগীদের সাথে কন্ট্রাকে থাকা ব্যক্তিদের স্বেচ্ছাসেবক দিয়ে সনাক্ত করা হবে। কন্ট্রাক ট্রেসিং এর মাধ্যমে সনাক্ত হওয়া লোকজনকে পরবর্তীতে কোয়ারান্টাইনে নিয়ে আসার পরিকল্পনা করা হয়েছে। কন্ট্রাক ট্রেসিং এর মাধ্যমে সনাক্ত হওয়া লোকজনের মধ্যে যাদেরকে সন্দেহজনক করোনা রোগী মনে হবে এবং শরীরে উপসর্গ দৃশ্যমান থাকবে তাদের শরীরের স্যাম্পল কালেকশন করে ল্যাবে টেস্ট করা হবে। আবার টেস্ট রিপোর্ট পাওয়া পর্যন্ত তাদেকে আইসোলেশন রাখা হবে।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. অনুপম বড়ুয়া এ কথা জানিয়েছেন। এজন্য বাছাইকৃত স্বেচ্ছাসেবকদের সোমবার ও মঙ্গলবার, যথাক্রমে ২২ ও ২৩ জুন ২ দিন প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রশিক্ষণের পরদিনই স্বেচ্ছাসেবকেরা তৃণমূল পর্যায়ে গিয়ে করোনা ‘পজেটিভ’ রোগীদের সাথে কন্ট্রাকে থাকা ব্যক্তিদের কন্ট্রাক ট্রেসিং এর মাধ্যমে সনাক্ত করে তালিকা তৈরি করবেন। কন্ট্রাক ট্রেসিং এ সনাক্ত হওয়া উপসর্গবিহীন লোকজনকে অন্য কোথাও সম্ভব না হলে সাইক্লোন সেন্টার গুলোতে কোয়ারান্টাইনে রাখার জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে। করোনা ‘পজেটিভ’ রোগীদের সাথে কন্ট্রাকে থাকা ব্যক্তিদের কন্ট্রাক ট্রেসিং এর মাধ্যমে সনাক্ত করতে প্রথমে কক্সবাজার পৌরসভাকে বাচাই করা হয়েছে বলে জানান, অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. অনুপম বড়ুয়া।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •