বিগত পাঁচটি বছরের কাছাকাছি হলো প্রিয় বাবাকে হারিয়েছি। এই পাঁচটি বছরে তিলে তিলে বুঝেছি পৃথিবীতে বাবা কত বড় সম্পদ। তিনি শুধুমাত্র বাবা ছিলেন না ছিলেন আমার জীবনের সবচেয়ে বড় অাদর্শিক,নির্ভেজাল ও চরিত্রবান একজন উপদেষ্টা।
অত্যন্ত পরহেজগার মানুষটি সুদীর্ঘ ২২ টি বছর পবিত্র নগরীতে ছিলেন। দীর্ঘকাল থাকার সুবাদে ওমরা,হজ ও সবচেয়ে বড় আকবরী হজ পালন করতে পেরেছিলেন। সেখানে তিনি কিছুকাল একটি মসজিদের খাদেম হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছিলেন।যে মানুষটি নিজের সুখকে অকাতরে বিসর্জন দিয়ে আমাদের মানুষ বানিয়েছেন তিনি আজ কবরের চিরস্থায়ী বাসিন্দা।
প্রিয় বাবা আমাদেরকে সুখে রাখতে নিদারুণ কষ্ট করেছেন। যখন তাঁর জীবনে সুখের সময় আসছিল তখন মহান সৃষ্টিকর্তার ডাকে তাঁকে জগতের সকল প্রকার মায়া ত্যাগ করে চলে যেতে হয়।
জানিনা কবরে কেমন আছেন বাবা। তবে কেন জানি মনে হয়ে, কবরে দয়াময় আল্লাহ তায়ালা বাবাকে শান্তিতে রেখেছেন। মহান রব্বুল আলামীনের কাছে এই প্রার্থনা করি,তিঁনি যেন পৃথিবীর সব বাবাদের গুনাহ মাফ করে দেন, করবে শান্তিতে রাখেন ও জান্নাতুল ফেরদাউস নসীব করেন,আমিন।
লেখকঃ সাইফুল ইসলাম, টেকনাফ।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •