অনলাইন ডেস্ক : চট্টগ্রামের আনোয়ারায় ঘরের ভেতর গায়েবী মাজার তৈরি করে করোনাভাইরাস মুক্তির পানি পড়া দিয়ে আসছিলেন এক নারী। খবর পেয়ে কথিত মাজারটি গুঁড়িয়ে দিয়েছে আনোয়ারা থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার গুন্দ্বীপ গ্রামের ছালেক আলী তালুকদার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, কয়েক মাস আগে থেকে ঘরের ভেতর মাজার বানিয়ে হাজিরা দেখা ও করোনা মুক্তির পানি পড়া দিয়ে আসছেন শাকেরা খাতুন (৪৫)।

তিনি গুন্দ্বীপ গ্রামের ছাদেক আলী তালুকদার বাড়ির মোহাম্মদ আলীর স্ত্রী। ওই নারী নিজেই সেই মাজারের সকল কার্যক্রম চালিয়ে যান। মাজারের প্রচারণা চালাতে মাঠে নামানো হয় কিছু নারী-পুরুষ। চারদিকে চাউর হয় গায়েবী মাজারে করোনা মুক্তির পানি পড়া দেওয়া হচ্ছে।

শাকেরা খাতুনের দাবি, স্বপ্নের মাধ্যমে তার ঘরের ভেতর মা ফাতেমা, খাজা গরীবে নেওয়াজ ও গরম বিবির নামে মাজার করতে বলা হয়। তাই তাদের নামে তিনটি কবর করে গিলাফ টানিয়ে মাজার করেন তিনি। মাজারের পাশে হাজিরা দেখার আসন বসিয়ে করোনাসহ বিভিন্ন রোগমুক্তির পানি পড়া দিয়ে আসছেন।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দুলাল মাহমুদ বলেন, শাকেরা নামের এক নারী ঘরের ভেতর মাজার করে করোনা মুক্তির পানি পড়া দিচ্ছিলেন। খবরটি পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কথিত মাজারটি গুঁড়িয়ে দেয়। এ সময় ভবিষ্যতে এমন কাজ না করার জন্য ওই নারীকে সতর্ক করা হয়।