নিজস্ব প্রতিবেদক:

হোপ ফাউন্ডেশন ফর উইমেন এন্ড চিলড্রেন অব বাংলাদেশ পরিচালিত রামু উপজেলার দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়নের চেইন্দা এলাকায় অবস্থিত হোপ হসপিটাল পরিদর্শন করলেন রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা। হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডাইরেক্টর কে এম জাহিদুজ্জামান এবং সিনিয়র কর্মকর্তাবৃন্দ তাকে অভ্যর্থনা জানান। পরে উক্ত কর্মকর্তাবৃন্দ হোপ ফাউন্ডেশনের নতুন নির্মানাধীন হোপ ম্যাটার্নিটি ও ফিস্টুলা সেন্টারে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হোপ আইসোলেশন সেন্টারের বিভিন্ন বিভাগ ঘুরে দেখান।

এ সময় এই সেন্টারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা জেলা প্রশাসন এবং উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহায়তার আশ্বাস দেন।

উল্লেখ্য, উক্ত হোপ আইসোলেশন ইউনিটের মাধ্যমে প্রাথমিক ও মধ্যম টাইপের করোনা রোগীদের সেবা প্রদান করা হবে।
এ প্রসঙ্গে কান্ট্রি ডিরেক্টর কে এম জাহিদুজ্জামান বলেন, স্বল্প সংখ্যক জনবল ও সরঞ্জাম নিয়ে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম শুরু হরতে যাচ্ছি। বিগত ২১ বছরের স্বাস্থ্য সেবা প্রদানে হোপ হসপিটালের অভিজ্ঞতা রয়েছে। সরকারী-বেসরকারী এবং স্থানীয় জনগণের সার্বিক সহায়তা পেলে আমরা কমিউনিটির জনগণের করোনা সেবা দিতে পারবো।

আমেরিকা প্রবাসী ডা. ইফতিখার মাহমুদ এর অক্লান্ত পরিশ্রম ও মেধার মাধ্যমে কক্সবাজার জেলায় মাতৃমৃত্যু, শিশু মৃত্যুর হার কমানো এবং ফিস্টুলা মুক্ত করার জন্যই বিভিন্ন স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। তারই সার্বিক তত্ত্বাবধানে উক্ত করোনা ইউনিটটি পরিচালিত হবে। আরো উল্লেখ্য যে, হোপ ফাউন্ডেশন উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের মধুছরা নামক স্থানের ক্যাম্প-৪ এ আরেকটি ৫০ শয্যার হোপ আইসোলেশন সেন্টার চালু করেছে, যার মাধ্যমে রোহিঙ্গা ও স্থানীয় জনগণের চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •