বার্তা পরিবেশক:

কক্সবাজার সদর উপজেলার ভারুয়াখালীতে চলাচলের রাস্তা দখলে বাধা দেওয়ায় গুলি করেছে সন্ত্রাসীরা। এতে বৃন্ধ নারী পুরুষ সহ ৪ জন আহত হয়েছে। ১৫ জুন ভোরে ভারুয়াখালী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ড ঘোনা পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা বর্তমান জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীণ আছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বৃদ্ধা মোস্তফা বেগম জানান, দীর্ঘ ৩৫ বছর আগে জমি ক্রয় করে সেখানে আমরা বসাবাস করছি সেই থেকে আমাদের একমাত্র চলাচলের পথ যেটা ছিল সেটা কিছুদিন আগে হঠাৎ করে পার্শবর্তি সেলিম, রমজান আলীরা দখল করার পায়তারা করে। আমরা বাধা দেওয়ায় সব সময় আমাদের হত্যা করবে বলে হুমকি দিত। পরে আমরা বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তিদের বিচার দিলে সেখানে কারো কথা শুনছেনা তারা। পরে এ বিষয়ে ২ দিন আগে দৈনিক কক্সবাজার পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করা হয় এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা আমাদের উপর আবারো হামলা চালায়।

পরে আজ ১৫ জুন ভোরে তারা স্থায়ী ভাবে রাস্তা দখল করতে চায়লে আমরা বাধা দিলে সন্ত্রাসী সেলিম, রজমান আলী, নুর আয়েশা, হানিফা, রাসেল , সাদেক (মোস্তাক হত্যা মামলার আসামী) সহ ৮/১০ জন সন্ত্রাসী এসে আমাদের উপর হামলা চালায় এক পর্যায়ে তারা দেশিয় অস্ত্র গুলি এনে আমাদের উপর গুলি বর্ষণ করে এবং দা, কিরিচ নিয়ে তেড়ে আসে, আমরা প্রাণ বাচাঁতে ফিরে আসি। এতে আমি সহ শফিউল আলম, ছকিনা খাতুন,রুমা আক্তার আহত হয়।

এ ব্যাপারে মোস্তাফা খাতুন জানান,যে জমি নিয়ে সমস্যা হচ্ছে সেই ৩ শতক জমি ইতি মধ্যে আমরা রেজিট্রি করে নিয়েছি।

এ ব্যপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় কয়েকজন বলেন,মূলত সেলিম গং রা বাড়ি নির্মাণ করছে সেখানে মোস্তফা খাতুনদের চলাচলের রাস্তার থাকছে না। এটা কিন্তু অন্যায় কারন ভবিষ্যতে পেছনের মানুষ গুলো কিভাবে হাটাচলা করবে সেটা চিন্তা করা উচিত। এদিকে রাস্তা দখলে বাধা দেওয়ার ঘটনায় গুলি বর্ষণ হয়েছে শুনে শতশত মানুষ ঘটনাস্থল আসে। পরে আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •