এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের প্রভাবে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন ইতোমধ্যে চকরিয়া পৌরসভা এলাকাকে রেডজোন ঘোষনা করেছেন। প্রশাসনের সিদ্বান্তের আলোকে বর্তমানে রেডজোন এলাকাজুড়ে চলছে লকডাউন। এ অবস্থার কারণে জীবিকার উৎস হারিয়েছে শ্রমজীবি সাধারণ মানুষ। বিশেষ রেডজোন এলাকায় টমটম গ্যারেজ সমুহের বিদ্যুত সংযোগ লাইন বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে পড়েছেন পৌরসভা এলাকার টমটম চালক ও শ্রমিক শ্রেণীর মানুষ। এতে অভান অনটন বাড়ছে এসব পরিবারে।

অবশেষে বিষয়টি আমলে রেডজান কার্যক্রমের ফলে লকডাউনে বেকার হয়ে পড়া টমটম চালক কর্মহারা শ্রমিক পরিবারের পাশে দাঁিড়য়েছেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ। শুক্রবার ১২জুন রেডজোন এলাকা চকরিয়া পৌরসভার অন্তত ৬০টি টমটম চালক শ্রমজীবি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত থেকে ভুক্তভোগী পরিবার গুলোর নারী-পুরুষ সদস্যদের হাতে উপজেলা প্রশাসনের এসব ত্রাণ সহায়তা তুলে দিয়েছেন।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্দেশনার সঙ্গে সমন্বয় রেখে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জরুরী সভার সিদ্বান্তের প্রেক্ষিতে চকরিয়া উপজেলার পৌর এলাকা এবং উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের ২, ৩, ও ৮ নম্বর ওয়ার্ডকেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের ‘রেড জোন’ হিসেবে ঘোষণা করে মাঠ তদারকি চালাচ্ছেন।

৭ জুন মধ্যরাত ১২টার পর থেকে চকরিয়া পৌরসভা ও ডুলাহাজারা ইউনিয়নে রেডজোন ঘোষণাকৃত এলাকাসমূহের প্রধান সড়কগুলোতে চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইউএনও সৈয়দ সামসুল তাবরীজ এর নেতৃত্বে পুলিশ এবং আলাদাভাবে সেনাবাহিনী সদস্যরা টহল কার্যক্রম বৃদ্ধি করেছে। সচেতনতা কার্যক্রমের পাশাপাশি চকরিয়া উপজেলা প্রশাসন রেডজোন এলাকার শ্রমজীবি মানুষের মাঝে সরকারি তরফ থেকে ত্রাণ সহায়তা দেবেন। সেই আলোকে শুক্রবার ১২জুন রেডজোন এলাকা চকরিয়া পৌরসভার অন্তত ৬০টি টমটম চালক শ্রমজীবি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন উপজেলা প্রশাসন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •