মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে মঙ্গলবার ৯জুন ৪৭৮ জনের স্যাম্পল টেস্টের মধ্যে মোট ১২১ জনের রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। তারমধ্যে, কক্সবাজার জেলার ৯৫ জন ও ভিন্ন জেলার ২২জন ও রোহিঙ্গা শরনার্থী ১জন ও পুরাতন রোগীর ফলোআপ টেস্ট রিপোর্ট ৩ জনের ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। বাকী ৩৫৭জনের রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ পাওয়া যায়।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. অনুপম বড়ুয়া সিবিএন-কে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার ৯ জুন ‘পজেটিভ’ রিপোর্ট পাওয়া ১২১ জন করোনা রোগীর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৩৪ জন, উখিয়া উপজেলায় ৬ জন, চকরিয়া উপজেলায় ২২জন, পেকুয়া উপজেলায় ১০জন, রামু উপজেলায় ১জন, টেকনাফ উপজেলায় ২ জন ও মহেশখালী উপজেলায় ৩জন। রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পের অভ্যন্তরে চিকিৎসা সেবা ফ্যাসিলিটি থেকে স্যাম্পল টেস্টে পাঠানো (রোহিঙ্গা নয়) ১৭ জন।রোহিঙ্গা শরনার্থী পাওয়া গেছে ১ জন। এছাড়া বান্দরবানে ১০ জন। চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় ১২ জন। এছাড়া একইদিন রোহিঙ্গা শরনার্থী ক্যাম্পের হাসপাতাল ফ্যাসিলিটি থেকে পাঠানো আগে থেকেই করোনা আক্রান্ত হওয়া পুরাতন রোগীর ফলোআপ টেস্টে ২ জন (রোহিঙ্গা নয়) এবং কক্সবাজার সদর উপজেলার ১ জন পুরাতন রোগীর ফলোআপ টেস্ট রিপোর্ট পজেটিভ পাওয়া যায়।

এনিয়ে কক্সবাজার জেলায় আজ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন মোট ১১৮৪ জন। যারমধ্যে ৩৬ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীও রয়েছে।

কক্সবাজার জেলায় করোনা রোগী মৃত্যুবরণ করেছেন মোট ২৪জন। যারমধ্যে, ৩জন রোহিঙ্গা শরনার্থীও রয়েছে।

এদিকে, এ পর্যন্ত কক্সবাজার সদর উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৯৭ জন। রামু উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৯জন। চকরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ২২৯জন। পেকুয়া উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৫জন। মহেশখালী উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪২জন। কুতুবদিয়া উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪জন। টেকনাফ উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৩জন। উখিয়া উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৮৮জন।
রোহিঙ্গা শরনার্থী আক্রান্ত হয়েছেন ৩৬জন। এছাড়া কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে মোট করোনা স্যাম্পল টেস্ট করা হয়েছে মোট ৮৯০২ জনের। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২৯০ জন করোনা রোগী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •