জাবেদ নূর শান্ত
দেশে করোনা পরিস্থিতি দিন দিন বেড়েই চলছে। সারাদেশে বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা ৫০হাজার ছাড়িয়েছে। পাশাপাশি মৃত্যের সংখ্যাও বাড়ছে ব্যাপকভাবে। দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে আক্রান্তের দিক থেকে পর্যটন নগরী কক্সবাজারের বর্তমান অবস্থান চার নম্বরে অবস্থান করছে। কক্সবাজারে বর্তমানে আক্রান্তের সংখ্যা ১হাজার ছাড়িয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি শহরের পৌরসভায়।

৬জুন শনিবার হতে শহরের পৌরসভার অন্তর্ভুক্ত ১২টি ওয়ার্ডেই একটানা ১৪ দিন রেড জোন ঘোষণা করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। এমনকি সারাদেশের মধ্যে কক্সবাজার পৌরসভাকে প্রথম রেডজোন রেড জোনের আওতাভুক্ত করে। এসময়ে জরুরী যানবাহন ছাড়া সকল প্রকার যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ করেছে দিয়েছে প্রশাসন।

করোনার এই মহামারি পরিস্থিতিতে হাসপাতালে মূমুর্ষ রোগী নিয়ে যেতে হিমশিম খাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। তাই শহরের পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড (উত্তর) ছাত্রলীগ একটি ব্যতিক্রম উদ্যােগ হাতে নিয়েছে। জরুরী প্রয়োজনে হাসপাতালে রোগী নিয়ে যাওয়ার জন্য বিনামূল্যে ১০টি টমটম দিয়েছে এই ওয়ার্ডের ছাত্রলীগ কর্মীরা। কোনো মুমুর্ষ রোগীকে জরুরী হাসপাতালে নিয়ে যেতে পাশে থাকবে জরুরী সেবায় ব্যবহার করা এই ১০টি টমটম ।

অত্র ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের সভাপতি আসিফ বলেন, দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কর্মীরা শুরু থেকেই মাঠের মধ্যে আছি এবং আমাদের এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে । বাংলাদেশ ছাত্রলীগের যেকোনো নির্দেশনা আমরা যথাযথ পালন করে আসছি । আর এই এলাকার অসুস্থ রোগীদের জরুরী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এটি আমাদের একটি ক্ষুদ্র প্রয়াস।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •