সিবিএন:
কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও চাঁন্দেরঘোনা এলাকার বাসিন্দা, বৃহত্তর ঈদগাঁও বাজারের প্রবীন ব্যবসায়ী ও রিদুয়ান গার্মেন্টস এর মালিক মাওলানা কামেল ইবনে শরিফ (৬০) এর মৃত্যুর ৫ দিন পরে জানা গেলো তার করোনা নেগেটিভ।

কক্সবাজার মেডিকেল ল্যাবে পরীক্ষায় তার করোনা রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ হয়েছে।

মাওলানা কামেল ইবনে শরিফ বুধবার (৩ জুন) সকাল ৬টার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষে নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

তারও ৫দিন আগে করোনা টেস্টের জন্য নমুনা জমা দিয়েছিলেন তিনি।

৮ জুন মেডিকেলের ল্যাবের সুত্র ধরে এ খবর জানিয়েছেন মরহুমের নিকটাত্মীয় আবছার কামাল।

তিনি জানান, ঈদুল ফিতরের কয়েকদিন আগে থেকে তার জ্বর, সর্দি, কাশিতে ভোগেন মাওলানা কামেল ইবনে শরিফ।  জ্বর উঠানামা করছিল কয়েকদিন।তার জন্য স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন।

হঠাৎ শ্বাসকষ্ট বেড়ে গেলে মঙ্গলবার (২ জুন) দুপুরে সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন।

মৃত্যুর দিনই করোনাবিধি মতে জানাজা শেষে দাফন করা হয় মাওলানা কামেলকে।

এদিকে, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মাওলানা কামেল ইবনে শরীফের মৃত্যুর পর তাকে করোনা আক্রান্ত চিহ্নিত করে তার পরিবারের নিকট খাবার, গ্যাস ইত্যাদি নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহে বাধা দেয় এলাকার কিছু মানুষ। যে কারণে পরিবারের সদস্যরা মারাত্মক কষ্ট-ভোগান্তির মধ্যে দিন পার করছে। -অভিযোগ স্বজনদের।

মরহুম মাওলানা কামেল ইবনে শরীফের বড় ভাই বিশিষ্ট সমাজ সেবক মাওলানা ফাজেল ইবনে শরীফ জানান- সুস্থতা, অসুস্থতা মহান আল্লাহর দান। এতে কারো হাত নেই। এসব নিয়ে ট্রল করলে আল্লাহ সইবে না। কামেলের মৃত্যুর পর তার অসহায় পরিবারকে নিয়ে যারা অমানবিক আচরণ করেছে; খাদ্যসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিতে বাধা দিয়েছে, তা প্রত্যাশিত ছিল না। একটি সভ্য সমাজে এমনটি মোটেও কাম্য নয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •