করোনা পরবর্তী খাদ্যসংকট মোকাবিলায় বঙ্গবন্ধুর কৃষিভিত্তিক অর্থনীতির পুনর্জাগরণ ঘটাতে হবে : অধিনায়ক ১৫ আনসার ব্যাটালিয়ন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি : করোনায় বিধ্বস্ত এবং ভেংগে পড়া কৃষক ও মৎসচাষীদেরকে রোপনের জন্য চারা এবং পুকুর জলাশয়ে চাষাবাদের জন্য মাছের পোনা বিতরণ করেছেন চট্রগ্রাম ও কক্সবাজারের দায়িত্ব প্রাপ্ত ১৫ আনসার ব্যাটালিয়ন।
বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালকের নির্দেশে ও ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবস এবং মুজিব বর্ষ উপলক্ষে তারা এ ব্যাতিক্রমী উদ্যোগ নেন বলে ১৫ আনসার ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এএসএম আজিম উদ্দিন জানান। তিনি আরো জানান শুধু প্রান্তিক কৃষক চাষী ও খামারীদের জন্য নয়, আমরা
১৫ আনসার ব্যাটালিয়নের সকল সৈনিকরা ও ব্যাটালিয়ন সদর দপ্তরের মুজিব কাননে এবং সকল ক্যাম্পে ৫ জুন থেকে এ কর্মসূচি
বাস্তবায়ন শুরু করেছি। চলমান করোনায় আজ সারা বিশ্বের ন্যায় আমাদের দেশের কৃষক, জেলে, চাষী ও খামারীরা ও মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিয়েছেন করোনাকে কেন্দ্র করে যাতে দেশে খাদ্য সংকট হতে না পারে সেজন্য আমাদের আশে পাশে কোন পরিত্যক্ত জায়গা এবং পুকুর ও জলাশয় অনাবাদী থাকতে পারবে না। আমাদের মহা পরিচালক মহোদয় ও নির্দেশ দিয়েছেন আমাদের বাহিনীর সকল ক্যাম্প এলাকার ও নিজ বাডীতে সকল কৃষককে অধিক উৎপাদন ও চাষাবাদে উদ্বুদ্ধ করতে যেন সকল পদক্ষেপ নেওয়া হয়। আমরা আজ জাতির পিতা প্রদত্ত বাঙালীর মুক্তির সনদ ঐতিহাসিক মহান ৬ দফা দিবসের চেতনায় উদ্বুদ্ব হয়ে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক ও চাষীদের
মাঝে বৃক্ষচারা এবং মাছের পোনা বিতরণ করেছি। আমরা মনে করি মুজিব কানন মডেল অনুসরনের মাধ্যমে আরো বিভিন্ন সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্টান কৃষক খামারী এবং চাষীদের পাশে দাড়াবে। এতে আমাদের দেশ আগামীর যে কোন বেকারত্ব ও খাদ্য সংকটমুক্ত থাকবে। করোনার
ফলে কোন মানুষকে না খেয়ে থাকতে হবে না।

তিনি দেশে চলমান করোনা সংকট মোকাবেলায় সকলকে একযোগে কাজ করার আহবান জানিয়ে বলেন আগামীতে দেশে বিদেশে কর্মসংস্হানের সংকট সৃষ্টি হবে , বিদেশ থেকে শ্রমিক কর্মী ছাঁটাই হবে , গার্মেন্টস খাতে ও দেশে শ্রমিক ছাঁটাই শুরু হয়েছে । এখন সরকারের কৃষি সেক্টরকে ব্যাপক উন্নয়ন ও সংস্কার করে যদি জাতির পিতার সুচিত কৃষি ভিত্তিক অর্থনীতি পুনর্জাগরণ ঘটানো হয় তাহলে আমরা করোনা পরবর্তী খাদ্য সংকট মোকাবিলা করতে সক্ষম হবো ।তিনি গতকাল রবিবার মুজিব কাননে ঐতিহাসিক ৬ দফা দিবসে এ কার্যক্রম বাস্তবায়ন কাজ শুরু করার প্রাক্কালে কৃষক, চাষী এবং সৈনিকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখতে গিয়ে উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।

এতে অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ১৫ আনসার ব্যাটালিয়নের কোম্পানী কমান্ডার মোঃ সাব্বির হোসেন ব্যাটালিয়ন বিএইচএম, আরপি কমান্ডার সহ আরো অন্যান্য সৈনিক বৃন্দ। এছাড়া এতে সাধারণ জনগণের মধ্যে বক্তৃতা রাখেন বাবলা দে,পম্মী দে,
সদ্বীব, ইসাহাক ভান্ডারী, প্রান্ত দে প্রমুখ। এতে উপকারভোগীরা বলেন, আমরা করোনায় খুবই ক্ষতিগ্রস্থ। বর্তমানে ১৫ আনসার ব্যাটালিয়ন বিনামূল্যে ফলজ গাছের চারা ও মাছের পোনা বিতরণ করে আমাদেরকে ঘুরে দাড়ানোর যে সুযোগ করে দিয়েছে আমরা তাদের এ মানবিক উদ্যোগের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আনসার বাহিনীর মহা পরিচালক এবং ১৫ আনসার ব্যাটালিনের অধিনায়ক এএসএম আজিম উদ্দিন সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •