সোয়েব সাঈদ, রামু :

পর্যটন নগরী কক্সবাজার জেলায় আশংকাজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে করোনা আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা। ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়ে গেছে। রামু ডেডিকেটেড আইসোলেশন সেন্টারেও বেড়ে গেছে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। এহেন পরিস্থিতিতে রামুতে নির্মিতব্য বিকেএসপি ভবনকে আইসোলেশন সেন্টার করার পরিকল্পনা চলছে। এ লক্ষ্যে সোমবার (৭ জুন) সকাল ১১ টায় রামুর জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পাশে নির্মিতব্য বিকেএসপি ভবন পরিদর্শন করেছেন রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা জানিয়েছেন, নির্মিতব্য বিকেএসপি ভবন আইসোলেশন সেন্টার করার জন্য তিনি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাবেন। এখানে আইসোলেশন সেন্টার করতে হলে পানি ও নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরো জানান, জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিনদিন বাড়ছে। তাতে এ ধরনের আইসোলেশন সেন্টার করা অতীব প্রয়োজন।

পরিদর্শনকালে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়–য়া, জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল শামসুদ্দিন আহমেদ প্রিন্স, রামু থানার এএসআই আরিফ উপস্থিত ছিলেন।

ইতিপূর্বে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল আইসোলেশন সেন্টার করার লক্ষ্যে রামুতে নির্মিতব্য এ বিকেএসপি ভবন পরিদর্শন করেন।

এদিকে সোমবার (৭ জুন) সকালে রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা’র নেতৃত্বাধিন ভ্রাম্যমান আদালত রামু চৌমুহনী স্টেশনে করোনা পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে ব্যবসা পরিচালনার অভিযোগে আল জিয়া সুইটসকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •