মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

শনিবার ৭জুন রাত ১২টা থেকে আগামী ২১জুন রোববার রাত ১২ টা পর্যন্ত পুরো টেকনাফ পৌরসভা লকডাউন Lockdown থাকবে। টেকনাফের ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলাম
শনিবার ৬জুন ১৪দিনের লকডাউন চলাকালে টেকনাফ পৌরসভার জন্য জরুরী নির্দেশনা জারী করেছেন। টেকনাফ উপজেলা করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটির সিদ্ধান্তক্রমে ৫দফা এ কঠোর নির্দেশনা জারী করা হয়। এছাড়া গত ৬ জুন অনুষ্ঠিত উপজেলা করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটির সভায় টেকনাফ পৌর এলাকাকে ‘রেড জোন’ হিসাবে চিহ্নিত করা হয়।

নির্দেশনা অনুযায়ী পুরো টেকনাফ পৌরসভা
‘রেড জোন’ ঘোষণা করা হয়। রেড জোন এ আবশ্যক বিবেচনায় শনিবার রাত ১২ টা হতে পরবর্তী ১৪ দিনের জন্য কঠোর নির্দেশনা জারী করা হয়েছে।

নির্দেশনা অনুযায়ী সকল জনসাধারণ আবশ্যিকভাবে নিজ নিজ আবাসস্থলে অবস্থান করবেন।
সকল ব্যক্তিগত ও গণপরিবহণ বন্ধ থাকবে। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য বহনকরী হালকা ও ভারী যানবাহন রাত ৮.০০ ঘটিকা থেকে সকাল ৮.০০ পর্যন্ত ঘটিকা পর্যন্ত চলাচল করতে পারবে। কোভিড ১৯ মোকাবেলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত বেসরকারি গাড়ি চকরিয়া ইউএনও এর অনুমতি গ্রহণ সাপেক্ষে চলাচল করতে পারবে।

সকল প্রকার শপিং মল, দোকান, মার্কেট, বাজার, হাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র রোববার ও বৃহস্পতিবার কাঁচা বাজার ও মুদির দোকান স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে সকাল ০৮.০০ ঘটিকা থেকে বিকাল ০৪.০০ ঘটিকা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। ঔষধের দোকান এর আওতার বাইরে থাকবে। একইভাবে শুধুমাত্র রবিবার ও বৃহস্পতিবার বাণিজ্যিক ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ খোলা রাখা যাবে।

টেকনাফের ইউএনও এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুল ইসলাম কর্তৃক জারীকৃত এ সংক্রান্ত নির্দেশনা নিন্মে তুলে ধরা হলো –

“জরুরী ঘোষণা

এতদ্বারা টেকনাফ পৌরসভার সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, কোভিড-১৯ সংক্রমণ কার্যকর ও অধিকতর দক্ষতার সাথে নিয়ন্ত্রনে আনার লক্ষে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ সংক্রান্ত টেকনাফ উপজেলা কমিটির সিদ্ধান্ত মোতাবেক সমগ্র টেকনাফ পৌরসভা রেড জোনের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। রেড জোনে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা আবশ্যক বিবেচনায় আগামী ৭জুন ২০২০ খ্রি. রাত ১২.০০ ঘটিকা থেকে ২১ জুন ২০২০ খ্রি. রাত ১২’০০ ঘটিকা পর্যন্ত নিম্নবর্ণিত নির্দেশনা প্রদান করা হল।
রেড জোন এলাকায়-
১. সব ধরণের ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক, রাজনৈতিক গণজমায়েত নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হল। সকল জনসাধারণ আবশ্যিকভাবে নিজ নিজ আবাসস্থলে অবস্থান করবেন।

২. সব ধরণের ব্যক্তিগত ও গণপরিবহণ বন্ধ থাকবে। নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য বহনকারী হালকা ও ভারী যানবাহন রাত ৮টা থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত চলাচল করতে পারবে। কোভিড-১৯ মোকাবেলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত বেসরকারি গাড়ি চলাচলে উপজেলা প্রশাসনের অনুমতি গ্রহণ করতে হবে।
অ্যাম্বুলেন্স, রোগী পরিবহন, স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী ব্যত্তিবর্গের (অনডিউটি) পরিবহন, কভিড-১৯ মোকাবেলা ও জরুরী সেবা প্রদানকারী কর্তৃপক্ষের গাড়ি এর আওতার বাইরে থাকবে।

৩. সব ধরনের দোকান, মার্কেট, বাজার, হাট ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র রোববার ও বৃহস্পতিবার কাঁচা বাজার ও মুদি দোকান স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা রাখা যাবে। ওষুধের দোকান এর আওতার বাইরে থাকবে।

৪. কেবলমাত্র কোভিড-১৯ মোকাবেলা ও জরুরী সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান সীমিত আকারে খোলা থাকবে। কেবলমাত্র রবিবার ও বৃহস্পতিবার ব্যাংকসহ আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহ খোলা থাকবে। সব হাসপাতাল, চিকিৎসাসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ও কোভিড-১৯ মোকাবেলায় পরিচালিত ব্যাংকিং সেবা প্রদান এর আওতার বাইরে থাকবে।

৫. প্রকাশ্য স্থানে বা গণজমায়েত করে কোন প্রকার ত্রাণ, খাদ্য সামগ্রী বা অন্য কোন পণ্য বিতরণ করা যাবে না।

নির্দেশক্রমে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন

মোঃ সাইফুল ইসলাম
উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সভাপতি, উপজেলা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ কমিটি, টেকনাফ, কক্সবাজার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •