এ কে এম ইকবাল ফারুক, চকরিয়া:

কক্সবাজারের চকরিয়ায় পরকিয়ায় আসক্ত স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন নিজ স্ত্রী সানজিদা বেগম (২১)। এ ঘটনায় নিহত সানজিদার ঘাতক স্বামী মো. ছাদেককে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৪ জুন) ভোররাত ৩টার দিকে উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের দরগাহ পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এদিন সকালে পুলিশ গৃহবধু সানজিদার লাশ উদ্ধার করে প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহত সানজিদা বেগম চকরিয়া উপজেলার চিরিংগা ইউনিয়নের সওদাগরঘোনা এলাকার মৃত আবু নাহিদ বাবুলের কন্যা। সানজিদা-ছাদেক দম্পতির সংসারে দুই বছর বয়সি একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

নিহত গৃহবধূ সানজিদার বড় বোনের জামাই মো.করিম অভিযোগ করেন, গত ৩ বছর আগে বরইতলী ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের দরগাহপাড়া এলাকার মো.ছাদেকের সাথে ইসলামী শরিয়ত মতে সামাজিকভাবে বিয়ে হয় আমার শ্যালিকা সানজিদা বেগমের। দাম্পত্য জীবনে গত দুই বছর আগে তাদের সংসারে জুড়ে আসে এক ছেলে সন্তান। কিন্তু এরইমধ্যে সানজিদার স্বামী মো.ছাদেক পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে তার স্ত্রী সানজিদার উপর দফায় দফায় নির্যাতন শুরু করে। বিষয়টি জানার পর শ্যালিকা সানজিদাকে গত রমজান মাসের আগে শশুড় বাড়ি থেকে তার বাপের বাড়িতে নিয়ে আসি। তিনি আরও বলেন, গত কয়েকদিন আগে স্থানীয় ইউপি সদস্যের অনুরোধে সানজিদাকে আবারও শ্বশুড় বাড়িতে পাঠানো হয়। কিন্তু সানজিদা শ্বশুড় বাড়ি যাওয়ার পর তার উপর আবারো শুরু হয় অমানুষিক নির্যাতন। নির্যাতনের এক পর্যায়ে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে ঘাতক স্বামী তার স্ত্রী সানজিদাকে গলাটিপে হত্যা করে। পরে শ্বশুড় বাড়ি থেকে খবর দেয়া হয় সানজিদা বিদ্যুতের শর্ট সার্কিটে মারা গেছেন।

ভগ্নিপতি মো. করিম বলেন, শ্যালিকার মৃত্যুর খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার ভোর রাতেই আমরা সানজিদার শশুড় বাড়িতে যাই। সেখানে গিয়ে দেখা যায় সানজিদার নিথর দেহ মাটিতে পড়ে রয়েছে। তার গলায় কালো দাগ এবং কান দিয়ে রক্ত ঝরছে। তাৎক্ষনাত বিষয়টি থানা পুলিশকে জানানো হলে এদিন সকাল ৭টার দিকে হারবাং ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পুলিশ নিহত সানজিদার লাশ উদ্ধার করেন। পরে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী শেষে তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় সানজিদার ঘাতক স্বামী মো. ছাদেককেও আটক করে পুলিশ।

গৃহবধূ সানজিদার লাশ উদ্ধার অভিযানে নেতৃত্ব দেওয়া হারবাং ফাঁড়ি পুলিশের আইসি ইন্সপেক্টর আমিনুল ইসলাম বলেন, নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকালে তার শশুড় বাড়ি থেকে গৃহবধু সানজিদার লাশ উদ্ধার করা হয়। গলাটিপে হত্যার কথা অস্বীকার করে তিনি বলেন, প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর সময় গৃহবধু সানজিদার গলায় কোন দাগ বা আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়নি। তবে পায়ের আঙ্গুলে পুড়ে যাওয়ার মতো একটা কালো দাগ রয়েছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, গৃহবধূ সানজিদাকে হত্যা নাকি বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটে তার মৃত্যু হয়েছে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নই। তবে বিষয়টি নিয়ে দুই পক্ষই দু’ধরনের কথা বলছেন। তাই আমরা লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছি। ময়না তদন্ত রিপোর্ট হাতে পেলেই বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে। এ ঘটনায় সানজিদার স্বামী মো. ছাদককে আটক করেছে পুলিশ। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দিলে এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •