নিজস্ব প্রতিবেদক :
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের গিলাতলী গ্রামে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমির ১০ টি গামরী গাছ কেটে ফেলেছে প্রতিপক্ষরা। সোমবার (১জুন) সকালে এ ঘটনা ঘটে। ক্ষতিগ্রস্থ জমির মালিক রশিদ আহাম্মদ বিষয়টি নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় অবগত করলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থল থেকে ৪৫ টুকরো কাঠ জব্দ করেন।

গিলাতলী গ্রামের আবদুল খালেক বলেন, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের গিলাতলী গ্রামের ১৭০ নং মৌজার এক একর পয়ঁত্রিশ শতক জমি মিস পিটিশন মোকাদ্দমা নং ১৯৬/(ডি) ২০০৮ এর চূড়ান্ত আদেশ মূলে রশিদ আহাম্মদের নামে রেকর্ডভূক্ত হয়। দীর্ঘদিন ধরে মৌলানা ইউনুছ ও তার সহযোগীরা এই জমি দখল করার পায়ঁতারা করে আসছেন। এ ঘটনায় ২০১৫ ইং সাল থেকে বান্দরবানের বিজ্ঞ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা চলছে। গত ১৫ মে ২০০৯ ইং তারিখ আদালত ওই জমিতে মোহাম্মদ ইউনুছ সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা জারি করে। তারপরও মোহাম্মদ ইউনুছ ও তার সহযোগীরা জমিতে এসে ১০ টি গাছ কেটে দিয়েছে ১ জুন সোমবার ।

এ ঘটনায় থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন রশিদ আহাম্মদ এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মৌলানা ইউনুছের সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি। নাইক্ষ্যংছড়ি থানা পুলিশের এস আই জাফর ইকবাল ও এস আই তৌহিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন কালে ৪৫ টুকরো কাঠ জব্দ করার কথা জানান সাংবাদিকদের।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •