সিবিএন:

কক্সবাজার পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মধ্যম নুনিয়ারছড়ার তরুণ ব্যবসায়ী মোহাম্মদ করিম (৩০) করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

সোমবার (১ জুন) সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। করোনার উপসর্গ নিয়ে দুই দিন আগে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই দিনই তার স্যাম্পল সংগ্রহ করা হয়। এখনো রিপোর্ট প্রকাশ হয় নি।

মোহাম্মদ করিম মধ্যম নুনিয়ারছড়া এলাকার শামসুল আলম প্রকাশ শামসু মাঝির ছেলে এবং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক।

ভাগ্নে সাজ্জাদুল ইসলাম বিশাল এ খবর মুঠোফোনে সিবিএনকে জানিয়েছেন।

তিনি জানান, শনিবার তার মামাকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। অবস্থার অবনতি হলে রবিবার সকালে হাসপাতালের আইসিউতে নেয়া হয়। আজ সোমবার সকালে মারা যান।

এদিকে, মোহাম্মদ করিমকে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসা ব্যবস্থার উপর জেলা যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক সোহেল ক্ষোভ প্রকাশ করে নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাস দেন।

তিনি লিখেন- ’কক্সবাজার পৌরসভার নুনিয়া ছড়ার মোহাম্মদ করিম নামে এক ব্যক্তি করোনা উপসর্গ নিয়ে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়। আজ রাতে তাঁর শ্বাস কষ্ট বেড়ে গেলে তাকে আইসিইউতে নেয়ার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। সে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে তাকে আইসিইউতে নেওয়া তাগিদ দিলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, সদর হাসপাতালে করোনা রোগীর জন্য কোন আইসিইউ’র ব্যবস্থা নাই! তারপর সে নিদেনপক্ষে তাকে অক্সিজেন দেওয়ার ব্যবস্থা করতে বললে, কর্তৃপক্ষ জানায়- হাসপাতালে পর্যাপ্ত অক্সিজেন এর ব্যবস্থা নাই। পরে তার পরিবার বাইরে থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার এর মাধ্যমে অক্সিজেন এনে তাঁকে অক্সিজেন দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এই হচ্ছে আমাদের সদর হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবার মান।’

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •