সিবিএন ডেস্ক:
ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে সংগ্রহ করা প্লাজমা করোনা রোগীর শরীরে প্রয়োগ করে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ পর্যন্ত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত শ্বাসকষ্টে ভোগা ছয়জন রোগীকে প্লাজমা থেরাপি দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হেমাটোলজি বিভাগের প্রধান ও প্লাজমা থেরাপির সাব কমিটির প্রধান অধ্যাপক ডা. এম এ খান।

বৃহস্পতিবার (২৮ মে) তিনি জানান, ঈদের আগ থেকে আজ পর্যন্ত যারা শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন এমন ছয়জন রোগীকে প্লাজমা থেরাপি দেয়া হয়েছে। পরীক্ষামূলকভাবে এ চিকিৎসা কার্যক্রম চালানো হয়েছে। প্লাজমা থেরাপি দেয়ার পর তাদের পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

ডা. এম এ খান আরও বলেন, প্লাজমা সংগ্রহ শুরুর দিন থেকে থেকে বুধবার পর্যন্ত আনুমানিক ১৯ জন করোনা জয়ীর কাছ থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করেছি। ডোনার পেলেই হাসপাতালে প্লাজমা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

বুধবার (২৭ মে) তিনজন করোনা জয়ী প্লাজমা দিয়েছে। তারা হলেন, মাশরুফ তাহমিম মল্লিক ও তার বোন মাহফারা তাসমিম এবং স্বাস্থ্যকর্মী কামরুজ্জামান তৌফিক।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মজিবুর রহমান জানান, হাসপাতালের নতুন ভবন কোভিড ইউনিট-২ এ ভর্তি কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর থেকে আজ বুধবার পর্যন্ত আনুমানিক ৪০০ রোগী ভর্তি হয়েছে। এদের মধ্যে অনেক রোগী আছে করোনার পাশাপাশি তাদের ডায়ালাইসিস করা হচ্ছে। এছাড়া বেশ কয়েকজন রোগী আইসিইউতে আছে।

ডা. মজিবুর আরও জানান, ঈদের দুই দিন আগে থেকে হাসপাতালে ভর্তি থাকা কয়েকজন রোগীর শরীরে প্লাজমা থেরাপি পরীক্ষামূলকভাবে দেয়া হয়েছে। প্লাজমা দেয়া রোগীদের পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •