সিবিএন ডেস্ক:

আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে আগামী ২৩ জুলাইয়ের মধ্যে রোহিঙ্গা গণহত্যা সম্পর্কিত কাগজ জমা দেওয়ার কথা ছিল গাম্মিয়ার। কিন্তু করোনা পরিস্থিতির কারণে গাম্বিয়া কাগজ জমা দেওয়ার সময়ের আবেদন করলে আদালত তা মঞ্জুর করেছেন।

গাম্বিয়া বনাম মিয়ানমার মামলায় আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত ২৩ জানুয়ারি আদেশ দেয় ২৩ জুলাই এর মধ্যে মামলা সংক্রান্ত তাদের কাগজপত্র জমা দেওয়ার জন্য।

মঙ্গলবার (২৬ মে) রাতে আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, গাম্বিয়ার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২৩ জুলাই এর পরিবর্তে ২৩ অক্টোবর তাদের কাগজ জমা দেবে। আর নতুন ব্যবস্থা অনুযায়ী মিয়ানমার তাদের সাক্ষ্যপ্রমাণ আগামী বছরের ২৩ জুলাই হাজির করবে।

গত ২৪ এপ্রিল গাম্বিয়া লিখিতভাবে সময় বাড়ানোর আবেদন করে। এ বিষয়ে মিয়ানমার কোনও আপত্তি না করে আদালতকে জানায় তাদের সিদ্ধান্ত মেনে নেবে।

এদিকে ২৩ মে মিয়ানমার রাখাইন পরিস্থিতি নিয়ে তাদের প্রথম রিপোর্ট আদালতের কাছে জমা দিয়েছে বলে জানিয়েছে একাধিক সূত্র।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা শুনেছি তারা একটি গোপন রিপোর্ট আদালতে জমা দিয়েছে।’

ওই রিপোর্টের একটি কপি গাম্বিয়াকেও দেওয়া হয়েছে জানিয়ে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘এই মামলায় বাংলাদেশ কোনও পক্ষ না হওয়ায় আমরা ওই রিপোর্টের বিষয়ে কিছু জানি না।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •