মুহাম্মদ উল্লাহ মাহদী:
একটি মাস সিয়াম, কিয়াম সাধনার মাধ্যমে রিপুর তাড়না, বাসনা, কামনা ও আত্মার পরিশুদ্ধি অর্জনের মাধ্যমে সর্ব শ্রেষ্ঠ তাকওয়া অর্জনের পর ফিরে আসে মহা আনন্দের দিন ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। নবী (সাঃ) জাহেলী যুগের নওরোজ ও মেহেরজান নামের অনৈতিক আমুদ ফুর্তি ও খেলাধুলার দুটি দিবসের অবসান ঘটিয়ে আল্লাহর অভিপ্রায়ে মুসলিমদের জন্য শ্রেষ্ঠতম দিবসের ঘোষণা দেন। এ দিবসে নারী পুরুষ দলে দলে ঈদগাহে গমনের মাধ্যমে যদি ও আমাদের দেশে নারীরা যাওয়ার রেওয়াজ নেই, ঈদের সালাত আদায় করি, গোসল সেরে নতুন, জামা, সুগন্ধি, কিছু খাবার খেয়ে তাকবীর ধ্বনি আল্লাহুআকবর আল্লাহুআকবর আল্লাহুআকবর লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু আল্লাহুআকবর আল্লাহুআকবর ওয়ালিল্লাহিল হামদ উচ্চসরে পড়ে ধনী গরীব, বাদশা ফকির এক কাতারে শামিল হয়ে সালাত আদায় করে ভেদাভেদ ভূলে গিয়ে কোলাকুলি করে মনের প্রশান্তি লাভ করি।
নবী (স.) আমাদের উদের শুভেচ্ছা বিনিমিয় শিখিয়েছেন, তাকাব্বাল্লাহু মিন্না ওয়ামিনকূম ইয়া আমলে ছালেহ। অর্থ আল্লাহ আপনার ও আমার নেক আমল গুলি কবুল করুন। কিন্তু দূঃখজনক হলে ও সত্য করোনা ( Covid 19) এর কারণে আমরা আজ স্থবির জনজীবন বিপর্যয় মহান আল্লাহ আমাদের পাপের শাস্তি দিয়ে পুরা বিশ্বকে থমকে দিয়েছে। যার কারণে মধ্য প্রাচ্যে বদ্ধ ঘরে ঈদ উদযাপন করতে হচ্ছে।
আমার বিগত ১৫ মার্চ ফ্লাইট থাকায় আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ১৪ তারিখ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় মাতৃভূমি স্বদেশের মাটিতে ঈদ উদযাপন করতে হচ্ছে,আলহামদুলিল্লাহ সবকিছু আল্লাহর ইচ্ছা। প্রবাসী বন্ধুরা নিদারুন দুঃখ-কষ্টের মধ্যেও হাসিমুখে সীমিত আকারে ঈদ উদযাপন করছে প্রবাস জীবনে সকলের প্রথম ঈদ উদযাপন আবদ্ধ বাসস্থানে। সেখানে ৫ দিনের জন্য কারফিও জারি করা হয়েছে সেখানে আইন কেহ ভঙ্গ করার সাহস পায়না। আইন মেনে চলে। আমাদের দেশে আইন আছে। কিন্তু আইনের প্রয়োগ না থাকায় মানুষ আইনকে কেয়ার করেনা।
আগামিকাল আমরা ঈদ উদযাপন করতে যাচ্ছি। ঈদে যাওয়ার পূর্বে সাদকাতুল ফিতরা আদায় করার নির্দশ।
আমরা মহান রবের কাছে সিয়াম, কিয়াম, ও ঈদ পালনের মাধ্যমে মহান রবের দিকে আত্মসমর্পণ করি জীবনের সকল ক্ষেত্রে আল্লাহর নৈকট্য ও সান্নিধ্য অর্জন করি আল্লাহর হুকুম আহকাম পালন ও বিধিনিষেধ বর্জনের মাধ্যমে এবং বেশী বেশী ইস্তেগফার, ফরজ সালাত, নফল সালাত আদায়ের মাধ্যমে আল্লাহর নিকট ফিরে আসি তাহলে আল্লাহ আমাদের এ মহামারি করোনা থেকে হেফাজত করবে। নব আনন্দে ফরে পারে জীবন প্রবাহ। স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলে মোরা মুক্ত আকাশে বিচরণ করতে পারব।
আল্লাহ সেই তাওফিক দিন, আমিন।

মুহাম্মদ উল্লাহ মাহদী
সভাপতি
কক্সবাজার মাদানী ফোরাম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •