মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে শনিবার ২৩মে ২৫৮জনের স্যাম্পল টেস্টের মধ্যে ৩৯ জনের রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। তারমধ্যে ৩৩জন কক্সবাজার জেলার নাগরিক। বাকী ৬জন করোনা আক্রান্তের মধ্যে চট্টগ্রাম জেলার সাতকানিয়া উপজেলায় ৪ জন, লোহাগাড়া উপজেলায় ২জন রয়েছে। এছাড়া আগে আক্রান্ত হওয়া ৬জন করোনা ভাইরাস রোগীর ফলোআপ রিপোর্টও ‘পজেটিভ’ পাওয়া যায়।

কক্সবাজার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা সিবিএন-কে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এনিয়ে কক্সবাজার জেলায় শনিবার ২৩মে পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ৩২৭ জন। করোনা আক্রান্ত হওয়া রোহিঙ্গা শরনার্থী ২১জন সহ মোট করোনা রোগী ৩৪৮ জন। এ ২১জন রোহিঙ্গা শরনার্থী করোনা রোগী গত ২২মে পর্যন্ত আক্রান্ত হয়।

শনিবার ২৩মে ‘পজেটিভ’ রিপোর্ট পাওয়া ৩৩জন করোনা রোগীর মধ্যে মহেশখালী উপজেলায় ৯জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১২জন, পেকুয়া উপজেলায় ৩জন, রামু উপজেলায় ২জন, উখিয়া উপজেলায় ৫জন ও টেকনাফ উপজেলায় ২জন। এছাড়া একইদিন ৩৫ জন রোহিঙ্গা শরনার্থীর স্যাম্পল টেস্ট করে কোন করোনা ভাইরাস সনাক্ত করা যায়নি। যা ২৫৮জন টেস্ট করা এদেশের নাগরিকের হিসাবের মধ্যে নেই।

এরমধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ১০৫ জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১০০ জন, পেকুয়া উপজেলায় ৩২ জন, মহেশখালী উপজেলায় ২৭জন, উখিয়া উপজেলায় ৪২ জন, টেকনাফ উপজেলায় ১১জন, রামু উপজেলায় ৮জন, কুতুবদিয়া উপজেলায় ২ জন এবং রোহিঙ্গা শরনার্থী ২১জন।

কক্সবাজার জেলায় ইতিমধ্যে একজন মহিলা সহ মৃত্যুবরণ করেছেন ৪জন করোনা রোগী। মোট ৬০জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •