মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে বুধবার ২০মে ১৫৪জনের স্যাম্পল টেস্টের মধ্যে ২৯জনের রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। এছাড়া ৩জন রামু ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতাল এবং ১জন চকরিয়া ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে পুরাতন করোনা রোগীর ফলোআপ রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া যায়। বাকী ১২১ জনের রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ পাওয়া যায়।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. অনুপম বড়ুয়া সিবিএন-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার ২০মে ‘পজেটিভ’ রিপোর্ট পাওয়া ২৯জন করোনা রোগীর মধ্যে ২৬জন কক্সবাজার জেলার। বাকী গুলো চট্টগ্রাম জেলা ও বান্দরবান জেলার বাসিন্দা। তারমধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ৯জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ১১জন, পেকুয়া উপজেলায় ১জন ও উখিয়া উপজেলায় ২জন।
এছাড়া বান্দরবানে ১জন চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় ৫জন করোনা রোগী রয়েছে।এনিয়ে কক্সবাজার জেলায় বুধবার ২০মে পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ২৫৫ জন।

এরমধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ৮৫ জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৭৩ জন, পেকুয়া উপজেলায় ২৭ জন, মহেশখালী উপজেলায় ১৩ জন, উখিয়া উপজেলায় ৩৩ জন, টেকনাফ উপজেলায় ৯জন, রামু উপজেলায় ৫জন, কুতুবদিয়া উপজেলায় ২ জন এবং রোহিঙ্গা শরনার্থী ১০জন।

রামু উপজেলার কাউয়ার খোপ ইউনিয়নের পূর্ব কাউয়ার খোপ গ্রামের মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এর স্ত্রী ছেনু আরা বেগম ৩০ এপ্রিল রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এই মহিলা হচ্ছে, কক্সবাজারে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণ করা রোগী। ইতিমধ্যে মোট ৫৭জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •