মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে মঙ্গলবার ১৯মে ১৭৮ জনের স্যাম্পল টেস্টের মধ্যে ৩৪ জনের রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া গেছে। এছাড়া চকরিয়া উপজেলায় ৭জন এবং চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলায় ১জন পুরাতন করোনা রোগীর ফলোআপ রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া যায়। বাকী ১৩৬ জনের রিপোর্ট ‘নেগেটিভ’ পাওয়া যায়।

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. অনুপম বড়ুয়া সিবিএন-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার ১৯মে ‘পজেটিভ’ রিপোর্ট পাওয়া ৩৪জন করোনা রোগীর মধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ১৭ জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৫জন, পেকুয়া উপজেলায় ২ জন, উখিয়া উপজেলায় ৩জন, টেকনাফ উপজেলায় ১জন, রামু উপজেলায় ১জন, রোহিঙ্গা শরনার্থী ৪জন এবং বান্দরবানে ১জন ।

এনিয়ে কক্সবাজার জেলায় মঙ্গলবার ১৯মে পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা হলো ২৩৫ জন।

এরমধ্যে চকরিয়া উপজেলায় ৭৭ জন, কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৬২ জন, পেকুয়া উপজেলায় ২৬ জন, মহেশখালী উপজেলায় ১৩ জন, উখিয়া উপজেলায় ৩১ জন, টেকনাফ উপজেলায় ৯জন, রামু উপজেলায় ১ জন, কুতুবদিয়া উপজেলায় ২ জন এবং রোহিঙ্গা শরনার্থী ১০জন। আজ মঙ্গলবার রামুতে সনাক্ত হওয়া তিনি র‍্যাব এর সদস্য।

রামু উপজেলার কাউয়ার খোপ ইউনিয়নের পূর্ব কাউয়ার খোপ গ্রামের মোহাম্মদ আবদুল্লাহ এর স্ত্রী ছেনু আরা বেগম ৩০ এপ্রিল রাতে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে আইসোলেশন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এই মহিলা হচ্ছে, কক্সবাজারে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে প্রথম মৃত্যুবরণ করা রোগী। ইতিমধ্যে মোট ৫৫জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •