হারুনর রশিদ, মহেশখালী:

মহেশখালী পৌরসভার দক্ষিণ ঘোনাপাড়া গ্রামের ইলিয়াছ ও একেরাম এর বসতবাড়ীর ভিতর থেকে ১লাখ ৮হাজার ৩শ মিটার নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল জব্ধ করেছেন প্রশাসন। যার আনুমানিক বাজার মুল্য-২৫ লাখ টাকা। ১৯শে মে দুপুর ১টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। মহেশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি সুইচিং মং মারমা,
মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর এর নেতৃত্বে একদল পুলিশ এবং মহেশখালী উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃআব্দুর রহমান খান, অফিস সহকারী রবি চাকমাসহ অভিযানে অংশ গ্রহণ করে দুই বসতবাড়ীতে অভিযান চালিয়ে থাইল্যান্ডের তৈরী কারেন্ট ফিশিং নেট উদ্ধার করা হয়। প্রশাসনের যৌথ অভিযান টেরপেয়ে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল পাচারকারী দলের সদস্যরা পালিয়ে যায়।

মহেশখালী উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি (নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট) সুইচিং মং মারমা জানান-এই কারেন্ট জালগুলি সরকারী ভাবে নিষিদ্ধ,, এই জাল পাচারের সাথে যারা জড়িত; তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মহেশখালী থানার ওসি প্রভাষ চন্দ্র ধর জানান – মহেশখালী হয়ে কোন চোরাচালান পাচার হতে দেওয়া যাবে না। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ কারেন্ট জাল পাচারের জন্য নিয়ে এসে জমা রাখা বসতবাড়ীর ভিতর থেকে জালগুলি জব্দ করা হয় এবং সংশ্লিষ্ট আইনের ধারায় মামলা রুজু করা হবে।

মহেশখালী উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃআব্দুর রহমান খান জানান- সামনে সাগরে ৬৫দিন সকল প্রকার জাল দিয়ে মাছ শিকার বন্ধ ঘোষণা আসার আগমুহুর্তে নিষিদ্ধ কারেন্ট জালগুলি মায়ানমার থেকে নিয়ে আসে পাচারকারীরা। জালগুলি সরকারী ভাবে নিষিদ্ধ তাই ম্যাজিস্ট্রেট এর উপস্থিতিতে জালগুলি জনসম্মুখে আগুনে ফুঁড়ানো হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •