চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

চট্টগ্রামে নগরবাসীর বৃহৎ স্বার্থে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ও বিস্তার রোধে শহরের প্রবেশদ্বার শাহ আমানত তৃতীয় সেতুর দক্ষিণপাড় কর্ণফুলীর মইজ্জারটেক চেকপোস্টে পুলিশ কঠোর থেকে কঠোর হচ্ছে।

পুলিশের এই কঠোরতার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কর্ণফুলী জোনের সহকারি পুলিশ কমিশনার (এসি) ইয়াসির আরাফাত।

গত রোববার (১৭মে) সন্ধ্যা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত শহরের প্রবেশ ও বাহির পথে পুলিশ কড়াকড়ি বাড়িয়েছে বলে জানান।

জানা যায়, সিএমপি পুলিশের নিয়ন্ত্রণ আরোপে কোন ব্যক্তি বা পরিবহন একান্ত জরুরী প্রয়োজন ব্যতীত যাতে চট্টগ্রাম মহানগরীতে প্রবেশ বা বাহিরে যেতে না পারেন সেজন্য নগরীর বিভিন্ন প্রবেশমুখে চেকপোস্ট জোরদার করা হয়েছে। এতে শুধু জরুরী সেবা ও রপ্তানি পণ্য সরবরাহ কাজে নিয়োজিত ব্যক্তি ও যানবাহনসমূহ এই নিয়ন্ত্রণের আওতামুক্ত থাকবে।

ফলে সিএমপির কর্ণফুলী থানাধীন মইজ্জারটেক চেকপোস্টে পুলিশের অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন ও বাড়তি নজরদারিসহ
শহরে প্রবেশ বা বাহির হতে কড়াকড়ি চলছে। গত তিন দিনে বহু যানবাহনকে ফেরত পাঠিয়েছে পুলিশ। তবে খবর পাওয়া যায়, এমন পরিস্থিতিতেও কয়েকটি প্রাইভেট কার ও হাইস গাড়ি ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে এসেছে। মূলত এরা পুলিশকে ফাঁকি দিয়ে শহরে প্রবেশ করেছে। এদের কয়েক জনের সাথে কথা বলে জানা যায়, সিটি গেইটের বিপরীতে শহরে প্রবেশ করার একটি বিকল্প রাস্তা রয়েছে। আর ইফতারের সময় থেকে ৮টা পর্যন্ত চেকপোস্টে পুলিশের নজর কম। তখন তারা ফাঁকি দিয়ে শহরে প্রবেশ করেছে বলে জানান।

কর্ণফুলী জোনের সহকারি পুলিশ কমিশনার (এসি) ইয়াসির আরাফাত বলেন, করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধ ও মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে মইজ্জারটেক চেকপোস্টে পুলিশ কঠোর থেকে কঠোর হবে। যেহেতু চট্টগ্রাম মহানগরীতে প্রবেশ-বাহির পথে মহানগর পুলিশ নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে। পুলিশ এই নিয়ন্ত্রিত চলাচলের ক্ষেত্রে নাগরিকদের সহযোগিতা কামনা করে।’

এসি আরো বলেন, ‘জরুরি প্রয়োজন ব্যতীত যাতে চট্টগ্রাম মহানগরীতে যেনো কেউ প্রবেশ করতে না পারে বা বের হতে না পারে সে লক্ষ্যে প্রবেশমুখে চেকপোস্ট জোরদার করা হয়েছে। তবে জরুরি সেবা ও রপ্তানিপণ্য সরবরাহকাজে নিয়োজিত ব্যক্তি ও যানবাহনসমূহ এই নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকবে। এই নির্দেশনা অমান্য করে কেউ নগরী থেকে বের হওয়ার চেষ্টা করলে কিংবা প্রবেশের চেষ্টা করলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •