বিশেষ প্রতিনিধি:

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় কুতুবদিয়ার  জাহিদুল ইসলাম হৃদয় (৩২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন কক্সবাজার জেলা ডিটেকটিভ ব্রাঞ্চ (ডিবি) পুলিশের ওসি শেখ আশরাফুজ্জামান।

ওসি আরো জানান, সোমবার ১৮ মে বিকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। সাইবার ক্রাইমে তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। যার মামলা নং-৩৯। গ্রেপ্তার জাহিদুল ইসলাম হৃদয় লেমশীখালী ইউনিয়নের কাজিরপাড়া এলাকার মৌলবী মাঈনুল হক কুতুবীর ছেলে। স্থানীয়রা অনেকে সে শিক্ষানবীশ আইনজীবি বলে জানান।

গ্রেপ্তার জাহিদুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ সুত্রে জানাযায় – দীর্ঘদিন তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সরকার, পুলিশ বাহিনী, সরকার দলীয় নেতা কর্মী, সাংবাদিকসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তির বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে সাধারণ মানুষকে উসকে দেওয়ার। অনেকে তাকে শিবির ক্যাডার বলেও মন্তব্য করতে দেখা যায়। অভিযোগ রয়েছে গ্রেপ্তার জাহিদকে কুতুবদিয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) বিভিন্ন সময়ে সরকারি নানা সুযোগ সুবিধা ও ত্রাণ বিতরণে স্বেচ্ছাসেবক টিমের আহ্বায়ক করার। বিষয়টি আরও স্পষ্ট হয় জাহিদ উপর্যুপরি লাইভে এসে সরাসরি ইউএনও’র নাম ভাঙ্গাতে দেখে। এছাড়াও স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন জানান, ইতোমধ্যে তার বিরুদ্ধে যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও কওমি মাদ্রাসার নেতারা ডিজিটাল আইনে মামলা করার আবেদন করেছেন।

কুতুবদিয়া থানার ওসি মো. দিদারুল ফেরদৌস বলেন, স্বেচ্ছাসেবক নেতা শিবির কর্মী জাহিদের বিরুদ্ধে থানায় কয়েকটি অভিযোগ রয়েছে। তাছাড়াও নাশকতা মামলাসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে। সে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গন্যমান্য ব্যক্তি ও সরকার বিরোধী বিভিন্ন অপপ্রচার চালিয়ে আসছে।’

কক্সবাজার ডিবি পুলিশের ওসি শেখ আশরাফুজ্জামান জানান, ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় জাহিদকে আটক করা হয়েছে। বিকালে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছে।’

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলেও কুতুবদিয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •