সংবাদদাতা:

কক্সবাজার শহরের ৬নং ওয়ার্ডের বিজিবি ক্যাম্পস্থ পেতাসওদাগর পাড়ার দুই আওয়ামী পরিবারের উপর গভীর রাতে হামলা চালিয়েছে একদল দুর্বৃত্ত।

শনিবার (১৭ মে) দিবাগত রাত ১ টার দিকে এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, আওয়ামীলীগ নেতা
সোহেলের জায়গার পাশে জায়গা ক্রয় করে একই এলাকার বিএনপি নেতা লিয়াকত আলী ভুট্টো। জায়গার উপর চলাচলের রাস্তা দাবী করলে বাঁধে বিপত্তি। এ বিষয়টি সমাধানের জন্য বিভিন্ন জায়গায় কয়েকবার বৈঠকও হয়। কিন্তু বিষয়টি মীমাংসা না হওয়ার জের ধরে গভীর রাতে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে স্থানীয় যুবদল নেতা লিয়াকত আলী ভুট্টো,
আবদু জব্বার, নাছির, খোকন মুন্সি , জোসেদ, ক্যাডার রনিসহ ৩০/৪০ জনের সংঘবদ্ধদল গভীর রাতে হামলার উদ্দেশ্য
ইটপাটকেল ছুড়ে। কেউ হতাহত না হলেও এলাকায় এ বিষয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে।
যেকোন মুহুর্তে বড় ধরনের হতাহতের ঘটনা হবে বলে আশংকা প্রকাশ করেন এলাকাবাসী। তাই প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা জরুরী বলে দাবী করেন তারা।

ভুক্তভোগী সাবেক ছাত্রলীগ নেতা কামালপাশা জানান, রাত ১ টায় যখন
চারদিকের মানুষ ঘুমাচ্ছিল। তখন একদল সন্ত্রাসী কিছু বুঝে ওঠার আগে পেতা সওদাগর পাড়া এলাকার লিয়াকত আলী ভুট্টোর নেতৃত্বে আবদু জব্বার, নাছির, খোকন মুন্সি , জোসেদ, ক্যাডার রনিসহ ৩০/৪০ জনের সঙ্গবদ্ধ দল গভীর রাতে ইটপাটকেল ছুড়ে হামলা চালায়। ঘরের দরজা-জানালা ভাংচুর করে। এলাকায় একরকম ভীতিকর পরিবেশ সৃষ্টি করে। আমাদের শোর-চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের আমলে বিএনপি নেতাদের এমন দৌরাত্ম্য এলাকাবাসীকে হতবাক করেছে।
আমরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। পাশাপাশি, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক
মো.সোহেলের বাড়ীতেও একইভাবে
হামলার পায়ঁতারা চালায় এই সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসীরা। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ভুক্তভোগীর পরিবারের সদস্যরা।

এবিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (অপারেশন) মাসুম খান জানান,
ঘটনার বিষয়ে কেউ জানায়নি।ভুক্তভোগীদের পক্ষে অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •