জাহেদুল ইসলাম, লোহাগাড়া:
কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে লোহাগাড়ার প্রাইভেট হাসপাতালেন করোনায় ২৬ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৬ জনের পজেটিভ আসে। প্রাইভেট হাসপাতালে এসহ ১০ জনের করোনা পজেটিভ।

রোববার (১৭ মে) কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ল্যাবে ৬ জন করোনায় পজেটিভের বিষয়টি নিশ্চিত করেন লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ হানিফ।

এদের মধ্যে লোহাগাড়া মা ও শিশু হাসপাতালের ৫ জন, লোহাগাড়া মা-মণি হাসপাতালে ১জন। তিনজন মহিলা ৩ জন পুরুষ।

লোহাগাড়া মা শিশু হাসপাতালের ৫ জনের মধ্যে ম্যানেজার মাহমুদুল হক প্রকাশ বাবু(৫৫), তার বাড়ী আমিরাবাদ দর্জি পাড়া। টেকনেশিয়ান জাহেদ(৩০), তার বাড়ী কুষ্টিয়া, সে ভাড়াটিয়া বাসায় থাকে, সুপারভাইজার নজরুল ইসলাম(২৮), তার বাড়ী পদুয়া ঠাকুরদীঘি। বাকী ২জন মহিলা। তারা জোনাবীর পাড়াস্থ ভাড়াটিয়া বাসায় থাকে। তারাও একই হাসপাতালে কর্মরত।
অপরজন হাছিনা বেগম (৩২), লোহাগাড়া মা`মনি হাসপাতালের রিসিপশনে কর্মরত। তার বাড়ী পদুয়া ফরিয়াদেরকুল।

গত ১২ মে লোহাগাড়া মা ও শিশু হাসপাতালে ৩ জন ও মা-মণি হাসপাতালে ১ জনের করোনা পজেটিভ ধরা পড়ে। পরদিন ১৩ মে দুই হাসপাতালের ১৪ জনের নমুনাসহ মোট ২৬ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়।

এ নিয়ে লোহাগাড়া উপজেলায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ জন। চট্টগ্রাম থেকে করোনায় পজেটিভ আসা একজন করাউজানে হোম আইসলোশনে রয়েছে। মোট ৩২ জন। সুস্থ ১৪ জন ও মৃত্যু ১ জন।

জানা যায়, গত ১৩ মে ২৬ জনে জনের নমুনা নিয়ে কক্সবাজার মেডিকেলে কলেস হাসপাতালের ল্যাবে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। এদের মধ্যে ৬ জনের করোনা পজেটিভ আসে। ১০ জন চুনতি থেকে, একজন হাসপাতাল থেকে ১ জন অন্য ইউনিয়ন থেকে নমুনা পাঠানো হয়েছিল।

এই পর্যন্ত লোহাগাড়া উপজেলা থেকে ২৭৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। তাৎমধ্যে ১৩মে পর্যন্ত ২৪৭ জনের রিপোর্ট হাতে আসে। ৩০ জনের রিপোর্ট এখনো আসেনি বলে জানা যায়।

লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও প: প: কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ হানিফ বলেন, হাসপতালে করোনা আতংক নেই। যে সব স্বাস্থ্যকর্মীরা করোনা পজেটিভ এসেছিল তাদের সকলের নেগেটিভ আসে। স্বাস্থ্যকর্মীদের কয়েকবার করোনার নমুনা সংগ্রহ করে ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। সকলের এখন নেগেটিভ। বিভিন্ন এলাকা থেকে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠালে ৬ জনের পজেটিভ আসে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •