সিবিএন ডেস্ক:

>> অষ্টম সপ্তাহে আক্রান্ত ৩৯৭২, মৃত্যু ৩৫
>> নবম সপ্তাহে আক্রান্ত ৪৯৮০, মৃত্যু ৩৯
>> দশম সপ্তাহে আক্রান্ত ৮০৯৩, মৃত্যু ৬৯

গত ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্তের পর বর্তমানে দশম সপ্তাহ চলছে। দশম সপ্তাহের মেয়াদকাল ১০ থেকে ১৬ মে পর্যন্ত। অর্থাৎ এ সপ্তাহ শেষ হতে এখনও দু’দিন বাকি।

অষ্টম সপ্তাহের তুলনায় দশম সপ্তাহের এখনও দু’দিন বাকি থাকতেই আক্রান্ত বেড়েছে প্রায় তিনগুণ ও মৃত্যু বেড়েছে প্রায় ‍দ্বিগুণ।

সুস্থতার পরিমাণও বেড়েছে কয়েক গুণ। তবে অষ্টম সপ্তাহে যেভাবে সুস্থতা নির্ধারণ করা হতো, এখন সেখানে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৪ মে) স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে অষ্টম, নবম ও দশম সপ্তাহের করোনায় আক্রান্ত, সুস্থ ও মৃত্যুর তুলনামূলক তথ্য উল্লেখ করে এসব কথা জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিনি বলেন, ‘আমাদের অষ্টম সপ্তাহ ছিল ২৬ এপ্রিল থেকে ২ মে। সেখানে আমাদের শনাক্ত ছিল ৩ হাজার ৭৯২ জন। সেই সপ্তাহে সুস্থ হয়েছিল ৬৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছিল ৩৫ জন। নবম সপ্তাহে (৩ থেকে ৯ মে) সে সময় আমাদের মোট শনাক্ত হয়েছিল ৪ হাজার ৯৮০ জন। সুস্থ হয়েছিলেন ২ হাজার ৩৩৭ জন। ওই সপ্তাহে মৃত্যুবরণ করেছিলেন ৩৯ জন। দশম সপ্তাহ শেষ হতে আমাদের এখনও দু’দিন বাকি। ১৪ মে পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে ৮ হাজার ৯৩ জন। এ সপ্তাহে সুস্থ হয়েছে ১ হাজার ১৮৯ জন। ১৪ মে পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করল ৬৯ জন।’

তিনি জানান, করোনায় দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৪ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে ২৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে আরও এক হাজার ৪১ জন করোনায় আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন। ফলে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১৮ হাজার ৮৬৩ জনে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •