খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব ##
করোনার কারণে সৌদি আরবের মক্কা-মদিনা ও জেদ্দায় গৃহবন্দী প্রবাসীদের ঘরে ঘরে উপহার সামগ্রী পৌঁছিয়ে দিলেন আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন।

মরণব্যধি রোগ করোনা ভাইরাস আজ সমগ্র বিশ্বজুড়ে ছড়িয়া পড়ছে। সৌদিতে প্রতিদিন হুহু করে বেড়ে চলছে এ মহামারি, রক্ষ পাইনি মধ্যপ্রাচ্য এ দেশটি।
করোনা বিস্তার ঠেকাতে গত ২ মার্চ থেকে সব আর্ন্তজাতিক ফ্লাইট বন্ধ করে দিয়ে পবিত্র মক্কা-মদিনাসহ ১৩টি বড় শহর অনির্দিষ্টকাল ও সমগ্র সৌদি আরবে কারফিউ জারি করেন দেশটির সরকার।
মক্কা ব্যতীত মাহে রমজানে সময় সীমা দিয়ে কারফিউ আংশিক পরিবর্তন আনলেও আর্ন্তজাতিক ফ্লাইট ও সব ব্যবসা বন্ধ রয়েছে।

সৌদি আরবের আইনের প্রতি সবসময় শ্রদ্ধাশীল প্রায় ২০ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

করোনায় অবরুদ্ধ হয়ে আজ গৃহবন্দী অবস্থায় মানসিক পারিবারিক ও খাদ্যসহ মহা অর্থ সংকট নানান চিন্তায় দিনযাপন করছেন সৌদি-প্রবাসীরা আর প্রতিদিন করোনা ও হ্নদয়রোগে মারা যাচ্ছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এ অবস্থায় দেশ থেকে সরাসরি নিময়মিত খবরাখবর নিয়ে নিজেই সৌদির বাসায় বাসায় গৃহবন্দী থাকা চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার নয় ইউনিয়নের প্রবাসীদের ঘরে ঘরে উপহার সমাগ্রী পাঠিয়ে দিলেন লোহাগাড়া সাতকানিয়াসহ চট্টগ্রামের অহংকার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলহাজ্ব আমিনুল ইসলাম আমিন।
তিনি প্রবাসীদের উদ্দেশ্য টেলিফোন এ প্রতিবেদককে বলেন, প্রবাসীরা হচ্ছে দেশ ও জার্তির সূর্য সন্তান, তাদের রেমিটেন্সে দেশের অর্থনীতি চাঙ্গ রাখে, দেশের অপূরণীয়কে পূরণ করে। তাদের অবদান ভুলার মতনয় বিশেষ করে সৌদি-প্রবাসীরা। তাই আজ চলমান পরিস্থিতিতে দেশের বৃত্তবানসহ আমাদের সবাইকে নিরবে প্রবাসীদের পরিবারের পাশ্বে থাকার আহবান জানান।

আলাহাজ্ব আমিনুল ইসলাম আমিনের দেয়া মক্কা-মদিনা ও জেদ্দা প্রবাসীদের উপহার সমাগ্রী দেয়ার লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি-সৌদি আরবের পক্ষ থেকে প্রতিনিধিত্ব করেন, সৌদি থেকে সংগঠনের সদস্য সচিব সাংবাদিক খলিল চৌধুরী ও দেশে থাকা প্রবাসী যুগ্ম-আহবায়ক লোকমান হাকিম ও শহিদুল ইনলাম।

লোহাগাড়া প্রবাসী সমিতি-সৌদি আরবের যুগ্ম আহবায়ক মক্কা-প্রবাসী জাকেরউল্লাহ বাচ্চু বলেন, আমাদের গর্ব আওয়ামীগের কেন্দ্রীয় নেতা আমিনুল ইসলাম আমিন বাংলাদেশে থেকে সৌদি-প্রবাসীদের কথা মনে রেখে এ মহামারিতে প্রতিটি প্রবাসী পরিবারের খবর নিয়ে ঘরে ঘরে যে উপহার সমাগ্রী পৌছঁলেন আমি মনে করি আমার প্রবাস জীবন ও প্রবাসীদের প্রথম ইতিহাস। আজীবন আমাদের পরিবারের কাছে আমিনুল ইসলাম স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •