মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

গত ৮মে করোনা ভাইরাস জীবাণু সনাক্ত হওয়া রোগী ইয়াসির আরাফাত (২৯) এর ৪দিন পর খোঁজ পাওয়া গেছে। তবে স্যাম্পল টেস্ট দেওয়ার সময় কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ইয়াসির আরাফাত এর দেওয়া ঠিকানা কক্সবাজার শহরের বৈদ্যের ঘোনা এলাকায় নয়, কক্সবাজার শহরের টেকপাড়া আমেনা খাতুন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে উত্তর দিকে যাওয়া রোডেস্থ কামাল বহদ্দারের বাড়িতে তাকে পাওয়া গেছে। করোন সনাক্ত হওয়ার ৪ দিন পর মঙ্গলবার ১২ মে বিকেল ৫ টার পর সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে সরকারি এম্বুলেন্স দিয়ে রামু ডেডিকেটেড করোনা হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বিষয়টি কক্সবাজার সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আলী এহেসান সিবিএন-কে জানিয়েছেন। তিনি আরো জানান, করোনা রোগী ইয়াসির আরাফাতের খোঁজ পাওয়ার পর তার কেস হিস্ট্রি জেনে তার অবস্থান করা বাড়ি ও চলাচল এলাকা তাৎক্ষণিক লকডাউন (Lockdown) করে দেওয়া হয়েছে। ডা. আলী এহেসান আরো বলেন, নিরুদ্দেশ হয়ে যাওয়া করোনা রোগী ইয়াসির আরাফাতকে পাওয়া গেলেও কক্সবাজার শহরের বার্মিজ মার্কেট ঠিকানা দিয়ে স্যাম্পল টেস্ট করা মোর্শেদ আলম (৪০) এর ১২ মে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি। এখনো নিরুদ্দেশ থাকা মোর্শেদ আলমের শরীরে গত ১০মে করোনা ভাইরাস সনাক্ত করা হয়। তার দেওয়া মোবাইল ফোন নাম্বারটি এখনো বন্ধ রয়েছে বলে জানান ডা. আলী এহেসান।

কক্সবাজার শহরের বার্মিজ মার্কেট এলাকায় করোনা শনাক্ত হওয়া রোগী মোর্শেদ আলম এর এখনো কোন খোঁজ না পাওয়ায় বার্মিজ মার্কেট এলাকার বাসিন্দারা উদ্বিগ্ন, আতঙ্কিত রয়েছে। তবে, মোর্শেদ আলমের দেওয়া ঠিকানা সঠিক কিনা-তা নিয়ে সন্দিহান এলাকাবাসী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •