মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কুতুবদিয়া উপজেলায় এখনো করোনা ভাইরাস জীবাণু আক্রান্ত কোন রোগী সনাক্ত হয়নি ইনশাআল্লাহ। ১১মে সোমবার কুতুবদিয়া উপজেলায় যে করোনা ভাইরাস জীবাণু আক্রান্ত রোগী সনাক্ত করা হয়েছে বলে তথ্য প্রচার হচ্ছে, তা সঠিক নয়। প্রকৃত ঘটনা হলো, কুতুবদিয়া উপজেলার মধ্য কৈয়ারবিল গ্রামের জনৈক ব্যক্তি দীর্ঘদিন ধরে কক্সবাজার সদরে বসবাস করছেন। তিনি গত ১০মে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের মাধ্যমে তার শরীরের স্যাম্পল কক্সবাজার মেডিকেল কলেজে টেস্টে পাঠায়। ১১মে সোমবার কক্সবাজার সদরে এখন স্থায়ীভাবে বসবাস করা উক্ত ব্যক্তির রিপোর্ট ‘পজেটিভ’ পাওয়া যায়। উক্ত করোনা সনাক্ত রোগী স্যাম্পল টেস্টে দেওয়ার সময় তার ঠিকানা কুতুবদিয়া উপজেলার মধ্য কৈয়ারবিল উল্লেখ করায় তাকে কুতুবদিয়ার করোনা রোগী হিসাবে চিহ্নিত করা হচ্ছে। যা মূলত সঠিক নয়। গত ৩মাসের মধ্যে সোমবার সনাক্ত হওয়া উক্ত করোনা রোগী কুতুবদিয়ায় যাননি।

১১মে সনাক্ত হওয়া একজন রোগীর ঠিকানা নিয়ে বিভ্রান্ত সৃষ্টির বিষয়ে কক্সবাজারের সিভিল সার্জন ডা. মোঃ মাহবুবুর রহমান এর কাছে জানতে চাইলে তিনি সিবিএন-কে একথা বলেন। তিনি আরো বলেন, তাকে এখন কক্সবাজার সদর উপজেলার করোনা রোগী বলে গণ্য করা হবে।

একই বিষয়ে কুতুবদিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কুতুবদিয়া উপজেলা থেকে গত ১০মে যে ৫জনের স্যাম্পল টেস্টের জন্য কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে পাঠানো হয়েছিলো, সে ৫টি স্যাম্পলের রিপোর্টই ‘নেগেটিভ’ এসেছে। এর আগে আরো ১৮৩ জনের স্যাম্পল টেস্ট করে তাদের রিপোর্টও সব নেগেটিভ পাওয়া যায়। অর্থাৎ ১১মে সোমবার পর্যন্ত কুতুবদিয়া উপজেলা থেকে স্যাম্পল টেস্ট করা ১৮৮ জনের সব রিপোর্টই ‘নেগেটিভ’ পাওয়া গেছে। কুতুবদিয়া উপজেলা করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ডা. জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী দৃঢ়তার সাথে বলেন, ইনশাআল্লাহ ১১মে সোমবার পর্যন্ত কুতুবদিয়া উপজেলায় কোন করোনা রোগী সনাক্ত করা হয়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •