মোহাম্মদ শাহজাহান

এক।

করোনার তান্ডব চলছে। বিশ্বজুড়ে। যুদ্ধও চলছে সমানে। করোনা-যুদ্ধ। এই যুদ্ধে সম্মুখ সারিতে আছেন কিছু পেশাজীবী। ডাক্তার। পুলিশ। সাংবাদিক।

দুই।

সাংবাদিকের ভাগ্য মন্দ।কারো কারো বেতন নেই। প্রশিক্ষণ নেই। পিপিই নেই। ত্রাণ নেই। আইনি নিরাপত্তা নেই। গায়েব হচ্ছেন। মার খাচ্ছেন। মামলা খাচ্ছেন। ডিজিটাল মামলা। গ্রেপ্তার হচ্ছেন। পিছমোড়া বেঁধে নিকৃষ্ট অপরাধীর মতো নিয়ে যাওয়া হচ্ছে টেনে। ভরা হচ্ছে গারদে।

তিন।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন হলো। ভয়ংকর সব বিধান রেখে। তার চেয়ে বেশি অস্পষ্টতা রেখে। সুবিধা মতো ব্যাখ্যার সুযোগ রেখে। তৈরি হলো শংকা। প্রতিবাদ হলো। দেয়া হলো বিবৃতি। বাদ গেলো না আবেদন। করা হলো নিবেদন। দেয়া হলো প্রতিশ্রুতি। উদ্বেগ-উৎকন্ঠা করা হবে বিবেচনা। ভয়ংকর ধারাগুলো দেয়া হবে বাদ। কিন্তু বিধি বাম। কিছুতেই হলো না কিছু।

চার।

কিছু সাংবাদিক দিলেন হাততালি। জোরসে। কতো ভালো আইন এটি! লাগবে এই আইন। নয়তো রসাতলে যাবে দেশ। লাইসেন্স, ডিক্লারেশন পাবার মওকা এলো। আরও কতো কী। থামে না তালি। বিবেক হোক খালি, চলছে চলুক তালি।

পাঁচ।

ধরা যাবে না। ছোঁয়া যাবে না। যাবে না বলা কথা। এই নাকি স্বাধীনতা। কোথা রাখি ব্যথা। চেরাগ জ্বলে, চেরাগ নেভে। কলম নেবে; অঘোরে হারাবে। ঘরের শত্রু বিভীষণ, কে ঠেকায় এখন?

মোহাম্মদ শাহজাহানঃ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট। মুঠোফোন-০১৮২৭৬৫৬৮১৬

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •