মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিশেষ প্রস্তাবঃ

রেললাইনের খালি জায়গায় টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলুন। তা হতে পারে এভাবেঃ-

রেললাইনের খালিজমি রক্ষণাবেক্ষণ ও কৃষিউন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতি চার কিলোমিটার পরপর একটি ছেলেদের জন্য, পরেরটি মেয়েদের জন্য, এভাবে টেকনিক্যাল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে। তা হবে রেললাইনের সর্বশেষ সীমার ৬গজের মধ্যে। ফলে তা কখনো রেললাইন সম্প্রসারণে কোন প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করবেনা। তা হবে মূলত ৬ষ্ঠ হতে দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত মাদরাসা স্কুল এন্ড কলেজ। তবে প্রয়োজনে আগেপরে আরো সংযোগ করা যাবে। প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান প্রত্যেক পাশের দুকিলোমিটার পর্যন্ত রেলওয়ের পরিত্যক্ত জমি রক্ষণাবেক্ষণ ও কৃষিআবাদ করে নিজেদের খরচ মিটাবে। এ প্রকল্প পুরাপুরি সরকারী ভাবে করলে অনেক ভর্তুকি দিতে হবে। তাই কোন বেসরকারী ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠা ও পরিচালনা করলে বাস্তবায়ণ অনেক সহজ হবে ইনশাআল্লাহ। সরকারের পক্ষ থেকে যখন যা দেয়ার তা ফাউন্ডেশনে অনুদান হিসেবে দিলেই যথেষ্ট।

এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা গেলে সরকারের তিনটা টেনশন কমবে।
ক. টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠানের ঘাটতি।
খ. প্রতিষ্ঠানের জমির ঘাটতি।
গ. প্রতিষ্ঠানের আয়ের ঘাটতি।

এর ফলে রেলওয়েরও তিনটা টেনশন কমবে।
ক. রেলওয়ের জমি দখল।
খ. রেলসম্পদের পাহারা।
গ. দক্ষ জনবলের অভাব।

এর ফলে স্থানীয় জনগণের তিনটা উপকার হবে।
ক. ঘরের কাছেই টেকনিক্যাল প্রতিষ্ঠান পাবে।
খ. কর্মশিক্ষা নিয়ে স্বনির্ভর হওয়া সহজ হবে।
গ. কাছে-দূরে, দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থান বাড়বে।

উক্ত প্রকল্পের নাম প্রস্তাব করছিঃ-
এগ্রিকালচার + বিজনেস + সায়েন্স = ABS প্রকল্প।
উক্ত প্রতিষ্ঠানের নাম প্রস্তাব করছিঃ-
ABS টেকনিক্যাল মাদরাসা স্কুল এন্ড কলেজ।
উক্ত ফাউন্ডেশনের নাম প্রস্তাব করছিঃ-
ABS ফাউন্ডেশন।
প্রকল্প গৃহিত হলে বাস্তবায়নের মেয়াদ হতে পারে ৩০ মাস। (ইনশাআল্লাহ যদি প্রস্তাবককেই দায়িত্ব দেয়া হয়।)

প্রস্তাবক

সাইফুল ইসলাম

ই-মেইল ঠিকানাঃ- saifuleidgahcox@yahoo.com

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •