সাখাওয়াত হোছাইন ,পেকুয়া :
দেশব্যাপি করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই আগামী ১০ মে থেকে সারাদেশে মার্কেট খোলার কথা থাকলেও পেকুয়ার সব মার্কেট ও দোকানপাট বন্ধ থাকবে। তবে নিত্য প্রয়োজনীয় চাল, মুদির, ওষুধ, জ্বালানি তেল গ্যাস ও কাঁচাবাজার খোলা থাকবে। পেকুয়া বাজার দোকান মালিক সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি এম ইসমাইল সিকদার ও সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক সাখাওয়াত হোছাইন সুজন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে একথা জানিয়েছেন।

এদিকে ৯ মে দুপুর ২ টার দিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে পেকুয়া বাজারের দোকানপাট খোলা রাখা না রাখার বিষয়ে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত হয়েছে। উপজেলা সহকারি কমিশনার ভূমি মিকি মারমা এর সভাপতিত্বে অনুষ্টিত সভায় উজানটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এম শহিদুল ইসলাম, রাজাখালী ইউপি চেয়ারম্যান ছৈয়দ নুর, বারবাকিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বদিউল আলম, টৈটং ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান শাহাব উদ্দিন, পেকুয়া বাজার দোকান মালিক সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি এম ইসমাইল সিকদার, সাধারন সম্পাদক সাখাওয়াত হোছাইন সুজন, পেকুয়া বাজারস্থ এসডি সিটি সেন্টার ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি মো আনোয়ার হোছাইন, সেক্রেটারি অধ্যক্ষ নুরুল আমিন, পেকুয়া বাজার হকার মার্কেট সমবায় সমিতির সাধারন সম্পাদক মোঃ শফি, পেকুয়া বাজার ব্যবসায়ি কো অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর সাবেক সহসভাপতি আজিজুর রহমান ও সাবেক সেক্রেটারি মিনহাজ উদ্দিন এসময় আলোচনায় অংশ নেয়। সভায় সকলেই ঐক্যমতে পৌঁছেছেন যে, আগামী ঈদুল ফিতর পযর্ন্ত পেকুয়া বাজারে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা হবে না। জনসাধারণ ও ব্যবসায়ীদের নিজেদের সুস্থতার কথা বিবেচনা করে এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিকে, বর্তমান প্রেক্ষাপটে দোকান না খোলার মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ীদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ
সাধারন সম্পাদক আবুল কাশেম সহ পেকুয়ার সচেতন মহল ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবি সংগঠনের নেতারা।

পেকুয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারন সম্পাদক আবুল কাশেম বলেন, দেশের স্বার্থে প্রত্যেকের নিজ নিজ জায়গা থেকে এগিয়ে আসতে হবে।
ব্যবসায়ীরা স্বপ্রণোদিত হয়ে যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা অত্যন্ত সময় উপযোগী। পেকুয়া উপজেলা সহকারি কমিশনার ভুমি মিকি মারমা বলেন, পেকুয়ার মানুষের
মধ্যে করোনা ঝুঁকি কমাতে ব্যবসায়ি, দোকান মালিকদের এ উদ্যোগে সবধরনে সহযোগিতা করবে উপজেলা প্রশাসন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •