মোঃ নাজিম উদ্দিন, দক্ষিণ চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:
নতুন চার রোগী ভর্তি দিয়ে শুরু হলো করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা। ৮ মে শুক্রবার বিকাল থেকে চট্টগ্রাম জেলার মধ্যে সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম বারের মত করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। শুক্রবার সাতকানিয়ায় করোনায় আক্রান্ত ৭ রোগীর মধ্যে ৪ রোগীকে নব স্থাপিত করোনা আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মজিদ ওসমানী।
জানা যায়, করোনা ভাইরাসের সংক্রমন বাংলাদেশে শুরু হলে দেশের অন্যান্য স্থানের ন্যায় সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা আইসোলেশন ইউনিট চালু করা হয়। তবে রোগীর সংখ্যা কম থাকায় এতোদিন আক্রান্ত রোগীরা চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিত। কিন্তু দিন দিন রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকলে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা জরুরী হয়ে পড়ে। সর্বশেষ (শুক্রবার) সাতকানিয়ায় একসাথে ৭ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হলে বিষয়টি ভাবিয়ে তোলে চিকিৎসা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের।
এ ব্যাপারে সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবদুল মজিদ ওসমানী বলেন, সাতকানিয়ায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার আপাতত ১০ বেডের একটি করোনা আইসোলেশন ইউনিট পূর্ণাঙ্গরূপে তৈরী করা হয়েছে। শুক্রবার করোনায় আক্রান্ত ২ কনস্টেবল ও ২ স্বাস্থ্য কর্মীকে আইসোলেশন ইউনিটে ভর্তি দিয়ে তাদের চিকিৎসা শুরু হয়েছে। আবদুল মজিদ আরো বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসার ২জন ডাক্তার, ২জন নার্স ও ২জন ওয়ার্ড বয় নিয়োজিত থাকবে। তারা ১২ঘন্টা করে পালাক্রমে ডিউটি পালন করবে।
চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. ফজলে রাব্বি দক্ষিণ ও উত্তর চট্টগ্রামের মধ্যে প্রথম বারের মত সাতকানিয়ায় (শুক্রবার) থেকে করোনা রোগীদের চিকিৎসা শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে ঝুঁকি কম অসুস্থতাবোধকারীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিবে। বেশি আক্রান্তরা জেনারেল হাসপাতালে চলে আসবে। পর্যায়ক্রমে জেলার প্রতিটি উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •