কামাল হোসেন, রামু :
রামুতে করোনা সনাক্ত হওয়ার পরে মৃত্যু বরণকারী ছেনুআরা বেগমের সংস্পর্শে থাকা ৯ জনের সবার রিপোর্টে করোনা নেগেটিভ পাওয়া গেছে। ৯ জনের মধ্যে ৭ জনের নমুনা সংগ্রহ করেন রামু স্বাস্থ্য বিভাগ বাকি ২ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছেন সদর হাসপাতালের কতৃপক্ষ। ৭ জনের রিপোর্টের বিষয়টি নিশ্চত করেছেন রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নোবেল কুমার বড়ুয়া। বাকি ২ জনের তথ্য পরিবার থেকে পাওয়া গেছে ।

জানা যায়,গত ৩০ এপ্রিল কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ছেনুআরা বেগমের শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্ত হয়। পারিবারিক সুত্রমতে ছেনুআরা দীর্ঘদিন ধরে হাঁপানি ও ডায়াবেটিস রোগে ভোগছিলেন। ২৯ এপ্রিল সকালে স্ট্রুক করলে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।কর্তব্যরত ডাক্তার তার উপসর্গ দেখে নমুনা পরিক্ষা করান।রিপোর্টে করোনা পজিটিভ আসে। সনাক্তের ৬ ঘন্টার মাথায় তিনি মারা যান। করোনা সনাক্তের খবরে সদর হাসপাতাল কতৃপক্ষ ও রামু স্বাস্থ্য বিভাগ রোগীর সংস্পর্শে থাকা ৯ জনের নমুনা সংগ্রহ করে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পাঠায়। তার মধ্যে ছেনুআরা বেগমকে বহনকারী অটোরিক্সার( সিএনজি) ড্রাইভারের নমুনও রয়েছে বলে জানিয়েছেন রামুর স্বাস্থ্য বিভাগ।
আজ ৩ মে বিকেলে তাদের রিপোর্ট পাওয়া গেলে তাতে সকলেরই করোনা নেগেটিভ আসে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ। পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সদর হাসপাতালে থেকে নেয়া দু’জনের নমুনার রিপোর্ট তারা ১ মে সদর হাসপাতাল থেকে পেয়েছেন। তারা দুজনই মৃতের সেবাদানকারী ছিল। তাদের মধ্যে ১ জন মেয়ে অপর জন জা (জাল)।
কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে আাজ (৩ মে) ১৮৮ জনের স্যাম্পল টেষ্ট করা হয়েছে তাতে সব রিপোর্টই নেগেটিভ আসে। তাদের মধ্যে ছেনুআরা বেগমের সংস্পর্শে থাকা লোকজনের রিপোর্টও রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন রামুর স্বাস্থ্য বিভাগ।

এদিকে মৃত্যু বরণকারী ছেনুআরা বেগমের রিপোর্ট নিয়ে এলাকায় চলছে নানান গুঞ্জন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে নানান মন্তব্য।হিসেব মিলছেনা কারো। অবশ্যই মৃতের পরিবার বিষয়টি মেনে নিয়েছে। তার বড় ছেলে জসিম উদ্দিন ভরসা বলেন,মেডিকেল রিপোর্টের উপর তিনি শ্রদ্ধাশীল। ভাগ্যে তার মায়ে মৃত্যু হয়তো এভাবেই লিখা ছিল। তিনি তার মায়ের জন্য সকলের কাছে দোয়া চান। স্থানীয় সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল সরওয়ার কাজল,উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা, এনএসআই রামু প্রতিনিধি আবু হানিফ সার্বক্ষণিক তাদের পরিবারের খোঁজ খবর রেখেছেন বলেও তিনি জানান। যারা দুর্সময়ে খবর রেখেছেন সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান জসিম উদ্দিন ভরসা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •