বার্তা পরিবেশক:
সাধারণ ছুটি বা লকডাউন কোন কিছুই থামাতে পারছে না সড়ক দুর্ঘটনা। গত ২৬ মার্চ থেকে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে দেশব্যাপী পরিবহন চলাচল বন্ধ ঘোষণা করা হলেও লকডাউনের ০১ মাসে ২০১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ২১১জন নিহত ও ২২৭জন আহত হয়েছে। একই সময় নৌ-পথে ০৮টি দুর্ঘটনায় ০৮জন নিহত, ০২জন আহত এবং ০২জন নিখোঁজ হয়েছে।

বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির সড়ক দুর্ঘটনা মনিটরিং সেলের পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। দেশের সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন বিশ্লেষণ করে আজ ০৩ মে রবিবার সকালে গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠনটি এই প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

এইমাসে সড়কে দুর্ঘটনায় আক্রান্ত ৬৯জন পথচারী, ৬৭জন চালক, ৩২জন পরিবহন শ্রমিক, ১৩জন শিক্ষার্থী, ০৩জন শিক্ষক, ৪৬জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, ২৭জন নারী, ২১জন শিশু, ০১জন সাংবাদিক এবং ০১জন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীর পরিচয় সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে।

এর মধ্যে নিহত হয়েছে ৫০জন চালক, ৬৪জন পথচারী, ২২জন নারী, ১২জন ছাত্র-ছাত্রী, ২০জন পরিবহন শ্রমিক, ১৮জন শিশু, ০১জন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, ০২জন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য, ০৩জন শিক্ষক ও ০১জন সাংবাদিক ছিল।

পরিসংখ্যানে দেখা যায় সর্বোচ্চ ৯৭টি দুর্ঘটনা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানে, ৬৩টি দুর্ঘটনা মোটরসাইকেলে, ২৯টি ব্যাটারিচালিত রিকশা ও ইজিবাইক, ২৮টি নসিমন ও করিমন, ২২টি সিএনজিচালিত অটোরিকশা, ১৭টি প্রাইভেট কার ও ১টি বাস এসব দুর্ঘটনায় জড়িত ছিল।

এ মাসে সবচেয়ে বেশি সড়ক দুর্ঘটনা সংগঠিত হয় ২৩ এপ্রিল এইদিনে ১৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৪জন নিহত ০৫জন আহত হয়।
সবচেয়ে কম সড়ক দুর্ঘটনা সংগঠিত হয় ০৯ এপ্রিল ১টি সড়ক দুর্ঘটনায় ০১জন নিহত হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •