সিবিএন প্রতিবেদক :

করোনাভাইরাস সংক্রমণকালীন সময়ে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ঘরে থাকা মানুষের দোরগোঁড়ায় চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে কক্সবাজারের সদর উপজেলার খুরুশকুলে উদ্বোধন করা হয়েছে মোবাইল হাসপাতালের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম। জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হাসপাতালের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন, পুলিশ সুপার এ বি এম মাসুদ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাজাহান আলি, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান, স্বাচিপ সভাপতি ডা. মাহবুবুর রহমান, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয়, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনকালে সিনিয়র সচিব বলেন, প্রত্যন্ত এলাকার কোনো ব্যক্তির করোনাভাইরাসের উপসর্গ পরিলক্ষিত হলে সেই রোগীর স্যাস্পল টেস্ট ও সার্বিক সহযোগিতা এই মোবাইল হাসপাতাল থেকে করা হবে। পাশাপাশি অসহায়, দরিদ্র অন্যান্য রোগীর প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা, পরামর্শ ও প্রয়োজনীয় ঔষধ বিনামূল্যে দেওয়া হবে এখান থেকেই। এ ছাড়া তিনি সকলকে করোনা মহামারি ঠেকাতে সরকারি নির্দেশনা মানার পাশাপাশি নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার পরামর্শ প্রদান করেন।

হাসপাতালের জন্য সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করছে কক্সবাজার জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ, বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) কক্সবাজার জেলা শাখা, কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ, ব্র্যাক ও গিফট কিং হিউম্যানিটি নামের একটি বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা।

এ হাসপাতালটি কক্সবাজারের শহর ও জেলার প্রত্যন্ত এলাকায় বয়োবৃদ্ধ, শিশুসহ দুস্থ মানুষ যারা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসতে পারছেন না তাদের জন্য । চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিতে এই ভ্রাম্যমাণ হাসপাতালের ব্যবস্থা করেছে কক্সবাজার জেলা প্রশাসন। হাসপাতালটি পর্যায়ক্রমিকভাবে বিভিন্ন এলাকায় সাধারণ রোগীদের প্রাথমিক চিকিৎসা, প্রয়োজনে হাসপাতালে রেফারেল করাসহ বিনামূল্যে ঔষধ প্রদান করবে। মোবাইল হাসপাতালের উদ্যােগ গ্রহণে যারা সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি জেলা প্রশাসন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন বলেন, ‘কক্সবাজার সদর উপজেলার খুরুশকুল ইউনিয়নের কুলালপাড়া থেকে আজ ভ্রাম্যমাণ হাসপাতালের সেবা শুরু হয়েছে। “ডাক্তারের পেছনে রোগী নয়, রোগীর পেছনে ডাক্তার” স্লোগান নিয়ে জেলার দুর্গম ও প্রত্যন্ত এলাকায় গিয়ে মানুষকে গুণগত প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দেবে এই ভ্রাম্যমাণ হাসপাতাল।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •