সারা দেশের মত কক্সবাজারে ও করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ চলছে এই পরিস্থিতিতে ব্যবসায়ী সমাজের পক্ষ থেকে আপনার নিকট বিনীত নিবেদন করছি কক্সবাজার শহর এবং আশপাশের দোকান / মার্কেট সীমিত আকারে হোক বা করোনা আক্রান্ত না হওয়ার যে সমস্ত নিয়ম গুলো নির্ধারণ করা হয়েছে, এই সব নিয়ম মেনে হোক দোকান/ মার্কেট খোলার বিষয়ে আপনার সু বিবেচনা কামনা করছি।

প্রত্যেক দোকান বা মার্কেটের সামনে হাত দোয়া থেকে শুরু করে জীবাণু নাশক স্প্রে ব্যবহার করে গ্রাহক বা কাস্টমার দোকানে আসতে পারে এই নিয়ম করে, দোকান খোলা রাখার অনুরোধ করছি,
নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর দোকান যেমন খাবারের দোকান, কাপড় চোপড় বিক্রির দোকান, মোবাইল ও মোবাইল সামগ্রী বিক্রির দোকান ( এটি বর্তমানে খুবই প্রয়োজনীয়) , ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিকস সামগ্রীর দোকান, ওয়ার্কশপ, সেলুন, বিকাশের দোকান সহ মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় দোকান বা মার্কেট।
কক্সবাজার শহর এবং আশপাশের এলাকায় এই সব ব্যবসায় কম করে হলেও ৫০০ দোকান রয়েছে, প্রতি দোকানের মালিক সহ কর্মচারী মিলে আনুমানিক লোকের সংখ্যা হবে ২০০০ জন, যারা বর্তমানে খুবই আর্থিক কস্টে দিন যাপন করছে, এই ২০০০ জনের পরিবার সহ হিসাব করলে প্রায় ১০,০০০ মানুষ রয়েছে, যাদের দ্ধারা সরকারি / বেসরকারি ত্রাণ সহয়তা পাওয়ার কোন সম্ভাবনা নাই, প্রায় প্রত্যেক দোকান দার একটি দোকান বা একটি ব্যবসার উপর নির্ভরশীল। এই পরিস্থিতিতে পড়বে তারা আগে কেউ কল্পনায় ও আনেনি, পরিবার পরিজন নিয়ে খুবই কস্টে দিনাতিপাত করে করছে।

অতীব দুঃখের সাথে জেলা প্রশাসক স্যার কে আবেদন করছি আশা করি বিষয় টি বিবেচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন, কক্সবাজারের ব্যবসায়ী সমাজ আপনার কাছে কতজ্ঞ থাকিবে।

নিবেদক:
শাহীনুল ইসলাম শাহীন
যুগ্ন সম্পাদক
বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতি
কক্সবাজার জেলা শাখা।

সভাপতি
বিলকিস শপিং কমপ্লেক্স ব্যবসায়ী দোকান মালিক সমিতি
লালদিঘীর পাড়, মেইন রোড কক্সবাজার।

সভাপতি
ওয়াল্ড বীচ রিসোর্ট ফ্ল্যাট ব্যবসায়ী সমিতি
কলাতলী, কক্সবাজার।