(মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রমজীবিদের নিবেদিত কবিতা)

শামীম আকতার

যদি রাজপথে নামে ক্ষুধার্ত মানুষের ঢল
যদি গ্রাম থেকে ধেয়ে আসে এ মাটির ওয়ারিশ
তীব্র আক্রোশে ছিঁড়বে মুখোশ
খামছে খাবে জাতির মানচিত্র!

শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত বিলাসী চাঁদোয়ায়
বিষন্ন আজ রক্তের দামে কেনা মাটি
বিপন্ন স্বদেশ!
যার হাড়ে লবনের ঘ্রাণ বুকে সমুদ্র
তার চোখে স্বস্থি নেই,
যার চামড়ায় পোড়া রোদের গন্ধ
তার উনুনে শুন্য হাড়ি।
দিন- রাত গতর খাটে যে কৃষক
তার গোলা শুন্য,মুমূর্ষু।
নাগরিক চাকা ঠেলে যে মুজুর
তার ঝীর্ণদেহে ছিন্নবস্ত্র
লোনা রক্ত চুষে মাংসভূক শকুন।

খরায়- মঙ্গায়,বান – জলোচ্ছ্বাসে
ঠিকানাহীন মানুষ ক্ষুধায় পঙ্গু
রক্তঝরে গুলিবিদ্ধ শ্রমিকের, ধর্ষিত শিশুর
রক্ত ঝরে অগুনিত খাঁ খাঁ বুকের।
অন্ধকার রাতের মতো জেগে আছে অভাব
তবু উৎসব হয় শস্যের উৎসব হয় উচ্ছিষ্টের।
ইটের নিসর্গে বন্ধী
জালিয়াতির কালো টাকা
শোষন ও শঠতায় ন- পুংশক রাজনীতি।

মগজ ও মননে অশ্রুতপূর্ব জুলুম
উল্লাসে মাতে পা চাটা কুকুর- চাটুকার দল।
শ্রমে – ঘামে সময়ের ধ্বংসস্তুপে
যেতে যেতে আর কতো ত্রাসন,
আর কতো সংহার?
থামাও বিনাশের দীর্ঘ রাত
থামাও বঞ্চিতের আর্তনাদ।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •