কনক বড়ুয়া, উখিয়া:
জনবহুল উপজেলা উখিয়া। করোনা মহামারিতে জনগণ সামলাতে সাধারণ সময়েই নাভিশ্বাস উঠে যায় উখিয়া থানা পুলিশ সদস্যদের। আর ইফতারের আগমুহূর্তে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় তাদের।

দেশের ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সামাল দিতে উখিয়ায় অনির্ধারিত দিনরাত দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে প্রশাসন। আর এসময় জনসাধারণকে ঘরে ইফতার করার সুযোগ দিতে এই কর্মকর্তাদের ইফতার সারতে হয় পথেই।

২৯ এপ্রিল ইফতারের আগমুহূর্তে উখিয়া হাজিরপাড়া সংলগ্ন দেখা গেছে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নিকারুজ্জামান ও উখিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার। দায়িত্ব পালন করতে করতে ইফতারের সময় ঘনিয়ে এসেছে। তবুও মনোযোগ জনগণ কিভাবে সামলাবে। মাহে রমজানেই ইফতার সম্পন্ন করেন রাস্তার পাশে।

উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিকারুজ্জামান বলেন, উখিয়া উপজেলা বলতে গেলে বন্ধ হয়ে গেছে। যেসব জায়গা মানুষের পদচারণায় মুখর থাকে, সেগুলো দেখলে এখন ভূতুড়ে মনে হয়। প্রতিদিনের চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা, স্কুল বন্ধ, ভ্রমণের উপর নিষেধাজ্ঞা, গণ-জমায়েতের উপর বিধিনিষেধ। তারপরও জীবন বাজি রেখে চেষ্টা করছি জনগণের সেবা দিয়ে যেতে।

সবার মতো পরিবারের সঙ্গে ইফতার করতে ইচ্ছে হয় কি-না জানতে চাইলে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার হাসিমুখে বলেন, আমাদের কাজটাই সেবামূলক। এতে আমাদের অভ্যস্ততা চলে এসেছে। আমি দায়িত্ব পালন করছি বলেই আর দশজন বাড়িতে বসে পরিবারের সঙ্গে ইফতার করতে পারছেন। এটা ভাবলে খারাপ লাগে না। ‌‘ইফতার হয়তো পরিবারের সঙ্গে করতে পারি না, কয়দিন পর ঈদ আসবে, এই করোনা পরিস্থিতিতে তখন ছুটি পাবো কি-না জানি না’ বলতেই কণ্ঠ ভারি হয়ে আসে তার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •