প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

করোনা কালে জনপ্রিয় সোস্যাল মিডিয়া ফেসবুকে গত ৪ এপ্রিল যাত্রা শুরু করে একটি গ্রুপ DakterBari(ডাক্তারবাড়ি)।

করোনা কালে ঘরেই থাকুন। ঘরে বসেই নিন টেলিমেডিসিন সেবা। অপনি ঘরে থাকলে দেশ থাকবে নিরাপদ- এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ডাক্তারবাড়ি চালু করেছে টেলিমেডিসিন সেবা। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ইতিমধ্যে গ্রুপটিতে যুক্ত হয়েছেন প্রায় ১৩০০ সদস্য। দেশ ও জাতির কল্যানে মানবসেবায় দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে গ্রুপটিতে যুক্ত হয়েছেন ৫০০ অধিক পেশাজীবি ডাক্তার।

ডাক্তারবাড়ি গ্রুপে পোষ্ট করা একটি ঘোষনার মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়ে বিশেষজ্ঞ পেশাজীবি ডাক্তারদের সমন্বয়ে একটি স্বেচ্ছাসেবী টেলিমেডিসন প্যানেলও গঠন করা হয়েছে।

ডাক্তারবাড়ির স্বেচ্ছাসেবী টেলিমেডিসিন সেবা সমন্বয় কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে যুক্ত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডা: শাহনেওয়াজ বারী, এছাড়া সমন্বয়কারী হিসেবে রয়েছেন যথাক্রমে ডা: নেছার বদরুদদৌজা, বিএসএমএমইউ, কলেজ বিএসএমএমইউ, ডা: হারুন অর রশীদ,স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ, ডা: নুর আলম মহিম, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হসপিটাল, ডা: শায়রিন আক্তার, খুলনা মেডিকেল কলেজ, ডা: জাহিদুল ইসলাম, বিএসএমএমইউ, ডা: মেহেদী হাসান, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল।

ডাক্তারবাড়ির টেলিমেডিসিন সেবায় উপদেষ্টা হিসেবে যুক্ত থাকার সম্মতি দিয়েছেন বড়লেখা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা: আব্দুল মুকিদ, মালেক উকিল মেডিকেল কলেজ, নোয়াখালীর ডা: ফজলে এলাহী খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডা: আকবর হোসেন, প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ডা: এম, ইয়াছিন আলী প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ।

পেশাজীবি ডাক্তার ছাড়াও গ্রুপটিতে শতাধিক এ্যাকটিভ সদস্য বিভিন্ন কাজে ঘরে বসে সহযোগিতা করছেন। যাদের অন্যতম তাসনিম ফয়েজ মেরী, তাবাসসুম শারমিন জোসি, মোহাম্মদ তারেক, আহমেদ আমান মাসুদ, সফটওয়্যার ইন্জিনিয়ার শরিফুল ইসলাম, আশিক আল অনিক, মাসুদ রানা, সৈয়দ মেজবাহ উদ্দীন, সৈয়দ আতিকুল ইসলাম, নাছির উদ্দিন ভুঁইয়া, এসএন টিভি.নিউজ সাংবাদিক আবু শাহেদ, নগর টিভি.কম সাংবাদিক আবু জিকির মুহাম্মদ জামাল, পোষ্টকার্ড বিডি.কম সাংবাদিক মেজবাহ খালেদ, বিডিক্রাইমনিউজ.কম সাংবাদিক কবির হোসেন দুলাল, চ্যানেল ৬৯টিভি.নেট সাংবাদিক মো: শাহরিয়ার রিপন, সাপ্তাহিক চট্টবানী সাংবাদিক রানা সাত্তার, সাংবাদিক বাবলু বড়ুয়া, সাংবাদিক শাহজাহান বাবুল, গ্রাফিক ডিজাইনার মিনহাজ উদ্দিন, হাবিব পিয়াস প্রমুখগন।

ডাক্তারবাড়ির অন্যতম উদ্যোক্তা মো: হামিদুর রহমান বলেন, অনেকদিন থেকেই স্বাস্থ্যখাতের এই উদ্যোগটি নিয়ে চিন্তা-ভাবনা ছিলো।কোরোনা কালে ঘরে বসেই অলস সময় পার করছিলাম। হঠাৎই ভাবলাম সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে কিছু করা যায় কিনা। গত ৪ তারিখ থেকে কাজটা শুরু করলাম।প্রথম দিকে উদ্দেশ্য ছিলো করোনাগুজব বিনাশ করা।কন্সপিরেসি থিওরি নিয়ে কাজ করা এবং গ্রুপে শেয়ার করতাম। রাগীব হাসান স্যারের লেখাসহ কিচু পোষ্ট গ্রুপে শেয়ার করলাম। গ্রুপে অনেকেই সানন্দে যুক্ত হতে লাগল। একদিন রাতে বাংলাদেশ টেলিভিশনের রিপোর্টার বিশ্বজিৎ কুমার রায় ফোন দিল। টেলিমেডিসিন নিয়ে ডাক্তারবাড়ি কি করছে? ভবিষ্যতে কিভাবে কাজ করবো ইত্যাদি। আগ্রহ বেড়ে গেল।

আরেকজনের কথা না বললেই নয়। ষ্টার্টআপ চট্টগ্রামের আরাফাতুল ইসলাম আকিব।সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে রেখেছে সব সময়।শুরুর পথ চলায় আন্তরিক পরামর্শ অনুপ্রেরনার রসদ যোগায়।

ডাক্তারবাড়ি নিয়ে ভবিষ্যত পরিকল্পনা বিষয়ে তিনি বলেন, আপাতত: বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করতে চাই। কোরোনা মহামারীতে ডাক্তারবাড়ির টেলিমেডিসিন সেবা নিয়ে কাজ করছি। কোরোনা মহামারি মোকাবেলায় সমাজের যে মানুষগুলো সমাজের ডটগুলোকে নিয়ে কাজ করছে তাদের সাথে থাকতে চাই। কোরোনা মোকাবেলায় সরকারি প্রচেষ্টায় সাধ্যমতো ক্যাটালিষ্টের ভুমিকায় কাজ করবে ডাক্তারবাড়ি। যাঁরা মানুষের কল্যানে কাজ করছেন তাদের ডাক্তারবাড়ির সাথে যুক্ত করতে চাই। ভবিষ্যতে সময় পেলে পরিকল্পনা নিয়ে ভাবা যাবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •