মোহাম্মদ হোসেন,হাটহাজারী :
করোনা সংক্রমণ রোধে প্রশাসন যখন রাতদিন মাঠপর্যায়ে কাজ করছে। তখন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলায় সামাজিক দূরত্ব বজায় না রেখে বুধবার(২৯ এপ্রিল) চৌধুরীহাট নিয়মিত বাজার বসে।

সকালে পরিদর্শন করে দেখা যায়,বাজারে ছিল উপচেপড়া ভিড়।উপজেলা প্রশাসন বেশ কয়েকবার চৌধুরীহাট বাজার ও দোকান ব্যবসায়ী প্রতিষ্টান বন্ধ করে দেওয়া হলেও মানছে না প্রশাসনের নির্দেশনা। উল্লেখ্য, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও সেনাবাহিনী গণসচেতনা সৃষ্টিতে নিরলসভাবে কাজ করলেও জনসাধরণের মধ্যে তার প্রভাব পড়ছে না।এদিকে সরকারি নিষেধ অমান্য করে হাটহাজারী উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সাপ্তাহিক হাট-বাজার বসছে। সে সব জায়গায় সৃষ্টি হচ্ছে প্রচুর জনসমাগম। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, নিরাপদ দূরত্ব বজায় না রেখে চলাচল করা কিংবা দোকান থেকে জিনিস ক্রয় করছে মানুষ। ওষুধের দোকান ছাড়া সব ধরনের দোকান বিকাল ৫টার পর বন্ধ রাখার নির্দেশনা দিলেও তা অনেক জায়গায় তা মানা হচ্ছে না। চৌধুরী হাটের পশ্চিমে চট্টগ্রাম সিটিকর্পোরেশন ১ নং দক্ষিণ পাহাড়তলী ওয়ার্ড সেখানে গতকাল একজন করোনা সনাক্ত হয়।

ইউএনও রুহুল আমিন জানায়,আমাদের টহল অব্যাহত রয়েছে, জনসমাগম পেলে তা ভেঙে দিচ্ছি এবং মানুষদের বোঝানোর চেষ্টা করছি। তিনি স্বীকার করে বলেন, উপজেলার সব জায়গায় মানুষের ভীড় সামাজিক দরত্ব বজায় না রেখে ঘর থেকে বের হচ্ছে, যেখানে সেখানে আড্ডা দিচ্ছে, তবে আমরা খবর পেলে আমাদের টহলদল সেখানে অভিযান পরিচালনা করছে। উপজেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পুলিশ রাতদিন মাঠ পর্যায়ে কাজ করে গেলেও মানুষ সচেতন হচ্ছে না

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •