মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

টেকনাফের করোনা আক্রান্ত প্রথম রোগীর স্যাম্পল ২য় বার টেস্টেও পজেটিভ পাওয়া গেছে। কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে ২৮ এপ্রিল টেকনাফের উক্ত করোনা রোগীর স্যাম্পল দ্বিতীয়বার টেস্টে ফলাফল পজেটিভ আসে।

রামুস্থ জেলা আইসোলেশন হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক ডা. আলী আহসান সিবিএন-কে এ তথ্য জানান। উক্ত করোনা রোগী রামুস্থ জেলা আইসোলেশন হাসপাতালে এখন চিকিৎসাধীন আছে।

টেকনাফের বাহারছরা ইউনিয়নের ৭ নাম্বার ওয়ার্ডের মারিশবনিয়া গ্রামের মৃত আব্বাস আলীর পুত্র মো: হোছাইনের করোনা ধরা পড়ে গত ১৯ এপ্রিল। তার চিকিৎসার এক সপ্তাহ পর আবার স্যাম্পল সংগ্রহ ২য় বার কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে টেস্টের জন্য ২৭ এপ্রিল সোমবার পাঠানো হয়েছিলো।

অন্যদিকে, মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহফুজুর রহমান জানান, গত ১৯ এপ্রিল স্যাম্পল টেস্টে করোনা ভাইরাস জীবাণু সনাক্ত হওয়া ৩ জন রোগীর চিকিৎসা প্রদানের সময় এক সপ্তাহ অতিবাহিত হওয়ায় তাদের দেহের স্যাম্পল টেস্টের জন্য ২৭ এপ্রিল বিকেলে ২য় বার কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। তবে তাদের টেস্ট রিপোর্ট ২৮ এপ্রিল পাওয়া যায়নি।

১৯ এপ্রিল পজেটিভ রিপোর্ট আসা মহেশখালী উপজেলার এই ৩ জন হলো-শাপলাপুর ইউনিয়নের-মুকবেকী এলাকার মোঃ বশিরের পুত্র ঢাকার একটি গার্মেন্টসের কর্মী মোঃ রায়হান (২৪) এবং অপরজন মুরুং ঘোনা এলাকার আবদুল খালেকের পুত্র আবু হানিফ (১৭), সে ঢাকার একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র। বড় মহেশখালী ইউনিয়নের মিয়াজি পাড়ার হালিমা সাদিয়া (২৫), সে ঢাকায় গৃহকর্মী ছিলো। এ ৩ জনই মহেশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •