প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

সারা বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাস মহামারী রুপ ধারন করেছে। বাংলাদেশেও এর প্রভাব ব্যাপকভাবে দেখা মিলছে। যার কারনে সারা বাংলাদেশ লকডাউন চলছে। অন্যদিকে ব্যুরো মৌসুম চলছে। ধান পাকার উপযুক্ত সময়। তাই লকডাউনের কারণে শ্রমিক সংকটে পড়েছে কৃষক। ঠিক তখনই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাত্রলীগকে নির্দেশ দিয়েছেন দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে বিনা পারিশ্রমিকে কৃষকের ধান কেটে ঘরে পৌঁছে দিতে।

শেখ হাসিনার এই নির্দেশের পর কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সারা বাংলাদেশর নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন স্ব-স্ব ইউনিটের আওতাধীন শ্রমিক সংকটে থাকা অসহায় কৃষকের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের ধান কেটে দিয়ে ঘরে পৌঁছে দিতে। সেই নির্দেশনামতো কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের উপ-গণযোগাযোগ সম্পাদক ও কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ওয়াসিফ কবিরের নেতৃত্বে ২০জন নেতাকর্মী খুরুশখুল ইউনিয়নের ডেইলপাড়ায় কৃষক জসিম উদ্দিনের আহবানে তার দুই বিঘা জমির ধান দিন ব্যাপী কেটে বাসায় পৌঁছে দিয়ে আসে।

ছাত্রনেতা ওয়াসিফ কবির বলেন- আপনারা জানেন সারা দেশ এখন লকডাউন। এই সংকটে মানুষের পাশে থাকায় ছাত্রলীগের অার্দশিক দায়িত্ব।পাশাপাশি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য্যের নেতৃত্বে সংকট শেষ না হওয়া পর্যন্ত সাধারণ মানুষের পাশে থাকবো।

তারই ধারাবাহিকতায় কৃষক জসিম উদ্দিন এর ফোন পেয়ে আমরা কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ২০জন নেতাকর্মী তার ধানক্ষেতে গিয়ে ভোর সকাল থেকেই সারাদিন ব্যাপী তার ধান কেটে ঘরে পৌঁছে দিয়ে আসি। এতে কৃষক জসিম অত্যন্ত আনন্দিত হয়েছে। পাশাপাশি সে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ছাত্রলীগকে মন থেকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। সেই সাথে আমরাও অত্যন্ত গর্বিত দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে এরকম মানবিক কাজে অংশগ্রহণ করতে পেরে এবং ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে এই প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •