এম.মনছুর আলম,চকরিয়া :
কক্সবাজারের চকরিয়ায় সাইফুল ইসলাম (৩২) নামের করোনা আক্রান্ত পজিটিভ রোগী সনাক্ত হয়েছে। তিনিই প্রথম উপজেলায় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি। আক্রান্ত রোগী সত্যতা নিশ্চিত হওয়ার পর উপজেলা প্রশাসন তার বাড়ি লকডাউন করেছে।
সোমবার (২৭ এপ্রিল) বিকেলে প্রশাসন উপজেলার ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের কাছারি পাড়া এলাকায় আক্রান্ত রোগীর বাড়িটি লকডাউন করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.তানভীর হোসেন।
করোনা ভাইরাস আক্রান্ত সাইফুল ওই ইউনিয়নের হাঁসেরদিঘীস্থ কাছারি পাড়া এলাকার আবদুল মতলবের ছেলে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ করোনা সনাক্ত রোগী বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: মোহাম্মদ শাহবাজ বলেন, গত ৮ এপ্রিল চট্টগ্রাম থেকে তিনি বাড়িতে আসেন। এর কয়েকদিন পর তিনি জ্বর ও গলাব্যথায় ভুগছিলেন। বিষয়টি জানার পর রোববার তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসে। পরে তার নমুনা সংগ্রহ করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে সোমবার তার করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।
তিনি আরও বলেন, তার রিপোর্টের বিষয়টি উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোতে জানানো হয়েছে। এ রোগীর পজিটিভ রিপোর্ট আসার পরে তাৎক্ষণিক ভাবে তার বাড়ি লকডাউনের ব্যবস্থা করে উপজেলা প্রশাসন।
কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা: অনুপম বড়ুয়া জানান, সোমবার ২৭ এপ্রিল ১২২ জনের স্যাম্পল টেষ্ট করা হয়েছে। তাতে ৬ জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। তাদের মধ্যে রামুর ১ জন, উখিয়ার ২ জন, চকরিয়ার ১ জন ও মহেশখালীর ১ জন।
চকরিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তানভীর হোসেন বলেন, আক্রান্ত শরীরে করোনা উপস্বর্গ দেখা দিলে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সোমবার কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাব পরীক্ষায় তার শরীরে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের বিষয়টি পজেটিভ হিসেবে রিপোর্ট আসে।
তিনি আরও বলেন, রোগীর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার পর ইউএনও মহোদয়ের নির্দেশে তাৎক্ষণিক ভাবে করোনা আক্রান্ত রোগীর বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে। ওই ব্যক্তি কার কার সংস্পর্শে গিয়েছে তা জানার চেষ্টা করছি। তবে তিনি একটি গার্মেন্টস কারখানায় নাকি চাকরি করতেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •