কামাল হোসেন, রামু :
রামু উপজেলায় প্রথম করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিটি রামু কাউয়াখোপ ইউনিয়নের গাছুয়া পাড়া ৭ নং ওয়ার্ডের মৃত ছুরুত আলমের পুত্র সালেহ আহমদ(৩৬)।
বিষয়টি প্রতিবেদকের কাছে নিশ্চিত করেছেন আইসোলেশন ইউনিটের ব্যবস্থাপনা কমিটির আহবায়ক ডা.আলী এহসান।

এলাকাবাসী জানান,আক্রান্ত সালেহ আহমদ গতকাল ২৬ এপ্রিল (রোববার) সকালে নারায়ণগঞ্জ থেকে এলাকায় আসে। এলাকাবাসী তাকে দেখতে পেয়ে প্রশাসনকে অবিহিত করলে রামু ইউএনও নিজে উপস্থিতি হয়ে তার বাড়ি লকডাউন করেন। সাথে সাথে রামু স্বাস্থ বিভাগের কর্মীরা তার নমুনা সংগ্রহ করে নিয়ে যান।

রামু উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা নোবেল কুমার বড়ুয়া বলেন, সালেহ আহমদের আসার খবর পাওয়ার সাথে সাথে আমরা তার নমুনা সংগ্রহ করেছি। আজ কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে থেকে তার শরীরে করোনা ভাইরাস সনাক্তের রিপোর্ট পাই। এখন তাকে রামুর আইসোলেশন ইউনিটে আনার প্রক্রিয়া চলছে। তার পরিবারের অন্যন্য সদস্যদেরও নমুনা পরিক্ষা করা হবে।

জানা যায়,  কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে আজ (২৭ এপ্রিল) ১২২ জনের স্যাম্পল টেষ্ট করা হয়েছে তাতে ৬ জনের রিপোর্ট পজেটিভ আসে। তাদের মধ্যে রামুর ১ জন,উখিয়ার ২ জন,চকরিয়ার ১ জন,মহেশখালীর ১ জন। এই নিয়ে গত ২৬ দিনে মোট ৯৮৪ জনের স্যাম্পল টেষ্ট করা হয়। এর মধ্যে ২০ জনের দেহে করোনা ভাইরাস জীবাণু সনাক্ত হয়েছে। এর ২ জন বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার। বাকি ১৮ জন কক্সবাজার জেলার। কক্সবাজারের ১৮ জনের মধ্যে ৯ জনই মহেশখালী উপজেলার।

গত শুক্রবার থেকে সোমবার পর্যন্ত রামুর আইসোলেশন ইউনিটে করোনা রোগী এসেছে ১০ জন। তৎমধ্যে সদরের ২ জন, টেকনাফের ৩ জন,মহেশখালীর ৫ জন। ভর্তি হওয়া সকল করোনা রোগী মোটামুটি ভালোই আছেন বলে জানিয়েছেন ডা.আলী এহসান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •