খলিল চৌধুরী, সৌদি আরব ##

পবিত্র মক্কা নগরী ব্যতিত ৩ রমজান থেকে ২০ রমজান পর্যন্ত সমগ্র সৌদি আরব জুড়ে কারফিউ প্রত্যাহারের আদেশ দিয়েছেন বাদশা সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদ।

তবে, এ সুযোগের আওতার বাহিরে থাকবে সেলুন দোকান, বিউটি পার্লার, জিম ও কমিনিউটি সেন্টার আরও অনেক প্রতিষ্ঠান।

সৌদি আরবে এক রাজকীয় ফরমানে আজ ৩ রমজান রবিবার (২৬ এপ্রিল) থেকে আগামী ২০ রমজান (১৩ মে) বুধবার পর্যন্ত পবিত্র মক্কা নগরী ও বিভিন্ন শহরে সম্পূর্ণ কোয়ারিন্টিন করা এলাকাসমূহ ছাড়া পুরো সৌদি আরবে সকাল ৯ টা হতে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত কারফিউ প্রত্যাহার করা হয়েছে।

পূর্বের কারফিউ আওতামুক্ত বিভিন্ন সেক্টরসহ আরো কিছু আর্থিক ও বাণিজ্যিক সেক্টরের কার্যক্রম আগামী ৬ রমজান (২৯ এপ্রিল) বুধবার হতে ২০ রমজান (১৩ মে ২০২০) বুধবার পর্যন্ত সকাল ৯ টা হতে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত চালাতে পারবে।

যেসকল সেক্টর চালু হবেঃ
পাইকারী ও খুচরা বিক্রয়ের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বিভিন্ন শপিং মল। তবে এসময় অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব নিশিচত করতে হবে। যে সমস্ত সেক্টরে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা যায়না যেমন সেলুন, বিউটি পারলার, ফিটনেস সেন্টার, বিনোদন কেন্দ্র, সিনেমা, কফি শপ, রেস্টুরেন্টসহ সেসকল সেক্টর সমূহ আগের মতই বন্ধ থাকবে।

কন্ট্রাক্টিং প্রতিষ্ঠান/ মুকাওয়ালাত, ফেক্টরী সমূহ তাদের কার্যক্রম আগামী ৬ রমজান (২৯ এপ্রিল) বুধবার হতে ২০ রমজান (১৩ মে ২০২০) বুধবার পর্যন্ত তাদের কাজের ধরণ অনুযায়ী কোনরকম সময়ের বাধ্যবাধকতা ছাড়াই চালু রাখতে পারবে।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ উল্লেখিত সেক্টরসমূহে নিয়মিত প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা হচ্ছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করবে।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার উপর গুরুত্ব দিতে হবে। পাচ জনের বেশি একত্রিত হওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা থাকবে। এসময় কোন সভা, সমিতি, সামাজিক প্রোগ্রাম অনুষ্ঠানের উপর নিষেধাজ্ঞা বজায় থাকবে।

প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চললে সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়াসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এসময়ে সার্বিক পরিস্থিতির উপর নিয়মিত মূল্যায়ন হবে। স্বাস্থ্য ও স্বরাষ্ট্র কর্তৃপক্ষ অন্যান্য কর্তৃপক্ষের সমন্নয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।কারফিউ প্রত্যাহার মানে এসময়ে চলাফেরা করা যাবে। সুনির্দিষ্টভাবে কোন কোন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে তা বানিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক স্পস্ট করা ছাড়া এখনই বলা সম্ভব হচ্ছেনা।

তবে রাজকীয় ফরমান হতে বুঝা যাচ্ছে যে, সমস্ত ব্যবসা বানিজ্যে সামাজিক দূরত্ব বজিয়ে রাখা যায়না সেগুলো বন্ধ থাকবে। রেস্টুরেন্ট সমুহ আগের মতোই বিকাল ৩টা থেকে রাত ৩টা পর্যন্ত শুধু পার্শেল ডেলিভারীর দেয়ার জন্য খোলা থাকতে পারবে। মসজিদে জামাতে নামাজ অনুষ্ঠিত হবেনা।

মহামারি করোনা ভাইরাস বিস্তার ঠেকাতে গত ২ মার্চ থেকে ১৩টি বড় শহরে অনির্দিষ্টকালের জন্য ও সমগ্র সৌদি আরব জুড়ে কারফিউ জারি করেন দেশটির সরকার।

এছাড়া ইসলাম ধর্মের প্রধান ধর্মীয় স্থান পবিত্র মক্কা বায়তুল্লাহ কা’বাঘর মসজিদুল হেরাম ও রওসুলের রওজা মোবারেক মদিনা মানোয়ার হেরামে সব ধরণের প্রবেশ বন্ধ করেন। মাহে রমজানে ২০ রাকাত থেকে ১০ রাকাত তারাবীহ নামাজ পরিবর্তন আনে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •